আন্তর্জাতিক

ভারতে পিয়ন পদে ৩৭০০ পিএইচডি ডিগ্রিধারীর আবেদন

ন্যূনতম পঞ্চম শ্রেণির যোগ্যতাতেই যে চাকরি পাওয়া যায় সেই চাকরির জন্য ভারতের উত্তর প্রদেশে ৩৭০০ জন পিএইচডি ডিগ্রিধারী আবেদন করেছেন।

ন্যূনতম পঞ্চম শ্রেণির যোগ্যতাতেই যে চাকরি পাওয়া যায় সেই চাকরির জন্য ভারতের উত্তর প্রদেশে ৩৭০০ জন পিএইচডি ডিগ্রিধারী আবেদন করেছেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে জানানো হয়, ১২ বছর ধরে খালি থাকা পুলিশের পিয়নের ৬২টি শূন্য পদের জন্য মোট আবেদন জমা পড়েছে ৯৩ হাজার। তাদের মধ্যে স্নাতক ডিগ্রি রয়েছে ৫০ হাজারের ও স্নাতকোত্তর রয়েছে ২৮ হাজার জনের।

পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষাগত যোগ্যতার বাইরে এই চাকরির জন্য আর যে দক্ষতার কথা জানতে চাওয়া হয়েছে তা হলো প্রার্থী বাইসাইকেল চালেতে পারেন কি না। উত্তর ‘হ্যাঁ’ হলে এর চেয়ে আর কিছুর প্রয়োজনই নেই। কিন্তু বিপুল সংখ্যক উচ্চশিক্ষিত প্রার্থী আবেদন করায় এই পদের জন্য এখন পরীক্ষা নেওয়ার কথা বিবেচনা করা হচ্ছে।

একজন কর্মকর্তা টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন, প্রার্থীদের মৌলিক যুক্তিবিদ্যা, সাধারণ জ্ঞান ও গণিতের প্রাথমিক ধারণা নিয়ে পরীক্ষার কথা ভাবছে নিয়োগ কর্তৃপক্ষ। চাকরির দায়িত্বের ধরন সম্পর্কে তিনি বলেন, পোস্ট ম্যান যে কাজ করেন তাদেরকেও প্রায় একই ধরনের কাজ করতে হবে। পুলিশের টেলিকম বিভাগের বার্তা বিভিন্ন অফিসে পৌঁছে দেওয়াই হবে তাদের মূল দায়িত্ব।

তবে কাজ যত সামান্যই হোক ভারতে উচ্চ যোগ্যতাসম্পন্নদের এসব চাকরিতে আগ্রহের মূল কারণ হলো দেশটিতে সরকারি চাকরির নিশ্চয়তা। আর বেতনও নেহায়েত কম নয়। চাকরির শুরু থেকেই বেতন হবে ২০ হাজার রুপি।

সম্প্রতি ভারতে রেলওয়েতে প্রায় এক লাখ শূন্য পদের বিপরীতে দুই কোটি আবেদন পড়েছিল। আর মুম্বাই পুলিশের এক হাজার ১০০ কনস্টেবল পদের জন্য আবেদন করেছিলেন প্রায় দুই লাখ জন। তাদের মধ্যে অনেকেরই আবার ছিলেন ডাক্তার, প্রকৌশলী ও আইন শাস্ত্রে স্নাতক।

Comments