আন্তর্জাতিক

দুই নারীকে বেত্রাঘাত ইসলামি ন্যায়বিচারের প্রতিচ্ছবি নয়: মাহাথির

মালয়েশিয়ায় সমকামিতার দায়ে দুই নারীকে বেত্রাঘাত করা উচিত হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

মালয়েশিয়ায় সমকামিতার দায়ে দুই নারীকে বেত্রাঘাত করা উচিত হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

গত ৫ সেপ্টেম্বর মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ বিষয়ে এক আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী মাহাথির বলেন, ‘ইসলাম সবার প্রতি সহানুভূতিশীল। এই বিচারের মধ্যে দিয়ে ইসলামের গুণাবলী প্রকাশ পায়নি।’

তারা প্রথমবারের মতো এই ভুল করেছে উল্লেখ করে মাহাথির বলেন, ‘শাস্তি না দিয়ে তাদের বুঝিয়ে বলাটাই সঠিক হতো। তাদের বেত্রাঘাত করা উচিত হয়নি।’

৬ আগস্ট নিজের ফেসবুক পেজে দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, কোথাও যদি এমন ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে ইসলামের আলোকে তাদের বুঝিয়ে বলতে হবে। তিনি আরও বলেন, ‘ইসলাম নিষ্ঠুরতার ধর্ম নয়। মানুষকে অপমানিত হতে হয় এমন কোনো শাস্তির বিধান এখানে নেই।’

দুই নারীকে বেত্রাঘাতের এই ঘটনা ইসলাম সমর্থন করে না বলেও তিনি মনে করেন।

‘ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে সে ব্যাপারে আমরা সতর্ক থাকব। এমন কোনো কাজ করা যাবে না যাতে ইসলামের ত্যাগ ও সহমর্মিতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়।’

তিনি বলেন, ‘আমরা যখন কোনো কাজ করি তখন মহান আল্লাহর নামে বিসমিল্লাহিররাহমানিররাহিম বলে শুরু করি। কিন্তু এরপরেই আমরা ভুলে যাই ইসলামের উদারতার কথা।’

গত এপ্রিলে শরিয়া আইন রক্ষাকারী বাহিনী ওই দুই নারীকে একটি গাড়িতে যৌনকর্মের চেষ্টার সময় আটক করে।

বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ওই দুইজনের বয়স ২২ এবং ৩২। তেরেঙ্গানু রাজ্যের শরিয়া হাইকোর্টে তাদেরকে ছয় বার করে বেত মারা হয়।

রাজ্যটিতে এ ধরনের অপরাধের জন্য এটিই প্রথম কারও দোষী সাব্যস্ত হওয়া এবং প্রকাশ্যে শাস্তি পাওয়ার ঘটনা।

গতমাসে ইসলামি আইন ভঙ্গের দোষ স্বীকার করার পর আদালত তাদেরকে বেত্রাঘাতের দণ্ডসহ ৮০০ মার্কিন ডলার জরিমানা করেন।

দেশটির মানবাধিকার সংগঠনগুলো দুই নারীকে দেওয়া এ দণ্ডের প্রতিবাদ করেছে।

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives in different parts of the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

2h ago