নতুন তিনটি আইফোন ঘোষণা দিল অ্যাপল

কেমন হবে নতুন আইফোন এ নিয়ে গত কিছুদিন ধরেই অ্যাপল প্রেমীদের মধ্যে জল্পনা কল্পনার শেষ ছিল না। আগেই ফাঁস হওয়া ছবি থেকে জানা গিয়েছিল এ বছর তিনটি নতুন আইফোনের ঘোষণা আসবে। গতরাতে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় আইফোন টেন এস, টেন এস ম্যাক্স ও টেন আর ঘোষণায় সেই অপেক্ষার শেষ হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রে ক্যালিফোর্নিয়ায় গতকাল রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে নতুন আইফোন বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে অ্যাপল। ছবি: রয়টার্স

কেমন হবে নতুন আইফোন এ নিয়ে গত কিছুদিন ধরেই অ্যাপল প্রেমীদের মধ্যে জল্পনা কল্পনার শেষ ছিল না। আগেই ফাঁস হওয়া ছবি থেকে জানা গিয়েছিল এ বছর তিনটি নতুন আইফোনের ঘোষণা আসবে। গতরাতে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় আইফোন টেন এস, টেন এস ম্যাক্স ও টেন আর ঘোষণায় সেই অপেক্ষার শেষ হয়েছে।

রয়টার্সের খবরে জানানো হয়, গত বছরের আইফোনের তুলনায় নতুন আইফোনে ডিজাইনে বড় ধরনের পরিবর্তন না আসলেও শক্তিশালী প্রসেসরসহ বড় ডিসপ্লের আইফোন উন্মোচন করেছে অ্যাপল।

এর মধ্যে আইফোন টেন এস ও বড় ডিসপ্লের টেন এস ম্যাক্সে ওএলইডি প্রযুক্তির এজ-টু-এজ ডিসপ্লে ব্যবহার করা হলেও টেন আর মডেলটিতে রয়েছে এলসিডি ডিসপ্লে। বাড়তি সুবিধা হিসেবে ব্যবহার করা যাবে ডুয়াল সিম। সেই সঙ্গে এই মডেলটিতে পেছনে একটি মাত্র ক্যামেরা থাকায় দামও তুলনামূলকভাবে কম রাখা হয়েছে।

গত বছরের আইফোন টেনের মতই তিনটি নতুন আইফোনের ডিসপ্লের ওপরে থাকছে নচ। এখানে ফ্রন্ট ক্যামেরা ও ফেস আনলক সিস্টেমের জন্য একাধিক সেন্সর থাকবে।

নতুন আইফোনের সবগুলো মডেলেই থাকছে নতুন এ১২ বায়োনিক চিপ। অ্যাপলের দাবি, বর্তমান বাজারে যেকোনো মোবাইল প্রসেসরের চেয়ে তাদের নিজেদের নকশা করা নতুন এই প্রসেসর অধিক শক্তিশালী। আগের এ১১ বায়োনিক চিপের চেয়ে অন্তত ১৫ শতাংশ বেশি শক্তিশালী ও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী।

আইফোন টেন এস ও টেন এস ম্যাক্স

আইফোন টেন এস ও টেন এস ম্যাক্সের নাম শুনেই বোঝা যায় এই দুই মডেলে সুযোগ সুবিধা প্রায় একই রকম হলেও পার্থক্য হবে ডিসপ্লের আকারে। ফোন দুটির ওএলইডি এইচডিআর ডিসপ্লের আকার যথাক্রমে ৫ দশমিক ৮ ও ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি।  আইফোন টেন এস ও টেন এস ম্যাক্সের সর্বনিম্ন দাম শুরু হবে যথাক্রমে ৯৯৯ ডলার ও ১,০৯৯ ডলার।

আইফোন টেন আর

টেন আর মডেলটিতে ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি এজ-টু-এজ এলসিডি ডিসপ্লে ব্যবহার করেছে অ্যাপল। নতুন এই এলসিডি ডিসপ্লের নাম রাখা হয়েছে লিকুইড রেটিনা ডিসপ্লে। এ ছাড়া থাকবে ফেসআইডি, ট্রু ডেপথ ক্যামেরা। ফোনটির পেছনের ও সামনের ক্যামেরা দিয়ে পোর্ট্রেট মোডে ছবি তোলা যাবে। ৬৪ গিগাবাইট, ১২৮ গিগাবাইট ও ২৫৬ গিগাবাইট স্টোরেজ সংস্করণে পাওয়া যাবে আইফোন টেন আর। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে এই ফোনগুলোর দাম পড়বে যথাক্রমে ৭৪৯ ডলার, ৭৯৯ ডলার ও ৮৯৯ ডলার। আগামী ২৬ অক্টোবর থেকে বিশ্বের ৫০টি দেশে এই মডেলটির বিক্রি শুরু হবে।

Comments

The Daily Star  | English
cyclone remal power restoration

Cyclone Remal: 93 percent power restored, says ministry

The Ministry of Power, Energy and Mineral Resources today said around 93 percent power supply out of the affected areas across the country by Cyclone Remal was restored till this evening

2h ago