তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রন্তুতি নিচ্ছে রাশিয়া?

রাশিয়ার পূর্ব সীমান্তে তথা সাইবেরিয়ায় চলছে দেশটির সোভিয়েত পরবর্তী সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া। গত ১১ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া মহড়াটি শেষ হচ্ছে আগামীকাল (১৭ সেপ্টেম্বর)। এতে অংশ নিচ্ছে দেশটির প্রতিবেশী চীন এবং মঙ্গোলিয়া। উত্তর আটলান্টিক সামরিক জোট (ন্যাটো) সদস্য তুরস্ককে এই মহড়ায় অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হলেও দেশটি পর্যবেক্ষক পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়।
Vostok 2018
গত ১১ সেপ্টেম্বর রাশিয়ার পূর্ব সীমান্তে তথা সাইবেরিয়ায় শুরু হয় দেশটির সোভিয়েত পরবর্তী সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া। মহড়াটি শেষ হচ্ছে আগামীকাল (১৭ সেপ্টেম্বর)। ছবি: এএফপি

রাশিয়ার পূর্ব সীমান্তে তথা সাইবেরিয়ায় চলছে দেশটির সোভিয়েত পরবর্তী সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া। গত ১১ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া মহড়াটি শেষ হচ্ছে আগামীকাল (১৭ সেপ্টেম্বর)। এতে অংশ নিচ্ছে দেশটির প্রতিবেশী চীন এবং মঙ্গোলিয়া। উত্তর আটলান্টিক সামরিক জোট (ন্যাটো) সদস্য তুরস্ককে এই মহড়ায় অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হলেও দেশটি পর্যবেক্ষক পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

‘ভসটক ২০১৮’ বা ‘পূর্ব ২০১৮’ নামের এই আয়োজনে রয়েছে রুশ সামরিক বাহিনীর তিন লাখ সদস্য। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে এক হাজার যুদ্ধবিমান ও ৩৬ হাজার ট্যাঙ্ক। মহড়ায় চীন পঠিয়েছে ৩২শ সেনা, ৯০০ কমব্যাট ভেইকেল এবং ৩০টি যুদ্ধবিমান। তবে মঙ্গোলিয়ার সেনা সংখ্যা নিয়ে নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

স্মরণকালের বৃহৎ এই সামরিক মহড়াটিকে পশ্চিমা দুনিয়া বিশেষ করে ন্যাটো দেখছে ‘এক ধরনের হুমকি’ হিসেবেই। তাই আটলান্টিকের দুই তীরেই সৃষ্টি হয়েছে চাপা উত্তেজনা। রুশ ভল্লুকের এমন বাড়বান্তকে ‘বাঁকা চোখে’ দেখতে গিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম এক্সপ্রেস খবরটির শিরোনাম দিয়েছে ‘তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের সতর্কতা’!

বিশ্ব সাংবাদমাধ্যমেও রাশিয়া-চীনের সর্ববৃহৎ এই আয়োজনটি উঠে এসেছে ‘পশ্চিমের দেশগুলোর প্রতি একটি হুমকি’ হিসেবে। তবে রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন দিয়েছেন শান্তির বাণী। সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে তিনি বলেছেন, “আমরা আসলে আন্তর্জাতিক সামরিক অংশীদারিত্বকে শক্তিশালী করার জন্যেই কাজ করছি।”

ছবিতে দেখা যাক সেই মহড়ার কিছু দৃশ্য:

Vostok 2018
রুশ সামরিক বাহিনীর প্রায় তিন লাখ সদস্য অংশ নিচ্ছে ‘ভসটক ২০১৮’ সামরিক মহড়ায়। ছবি: এএফপি

Vostok 2018
চীনা সংবাদমাধ্যম জানায়, পিপলস লিবারেশন আর্মির সদস্যরা রয়েছেন এই যুদ্ধ মহড়ায়। ছবি: এএফপি

Vostok 2018
শত্রুদের মোকাবেলায় সেনাদের দক্ষতার প্রশংসা করেন রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: এএফপি
Vostok 2018
বিশ্লেষকদের মতে, রাশিয়ার প্রতিবেশী দেশ চীন ও মঙ্গোলিয়া যেন তাদের সীমান্তে এতো বড় সামরিক উপস্থিতিকে কোনো রকমের হুমকি হিসেবে না দেখে তাই তাদেরকে মহড়ায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ছবি: এএফপি

Vostok 2018
‘ভসটক ২০১৮’ সামরিক মহড়ার আয়োজন করা হয়েছে রাশিয়ার রাজধানী মস্কো থেকে পাঁচ হাজার কিলোমিটার দূরে সাইবেরিয়ার পূর্বাঞ্চলে চীন ও মঙ্গোলিয়ার সীমান্তের কাছে। অর্থাৎ, জাপান ও কোরীয় উপকূলের দেশ দুটির দোর গোড়ায় চলেছে এই মহড়া। ছবি: এএফপি

Vostok 2018
পশ্চিমের সামরিক জোট ন্যাটো রাশিয়াকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেছে- এমন আয়োজনকে ‘বড় ধরনের সংঘাতে’ জড়ানোর প্রস্তুতি হিসেবে দেখছে সংস্থাটি। ছবি: এএফপি

Vostok 2018
রুশ সামরিক বাহিনী বলছে- এই বিশাল মহড়া সম্পূর্ণভাবে আত্মরক্ষামূলক। ছবি: এএফপি

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

10h ago