অস্ট্রেলিয়াকে ৩৭৩ রানে হারিয়ে সিরিজ পাকিস্তানের

দুবাই টেস্টে অবিশ্বাস্য ব্যাটিং শৈলী উপহার দিয়ে ম্যাচ বাঁচিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। অবুধাবিতেও এমন কিছুর প্রত্যাশা করেছিল দলটি। তবে মোহাম্মদ আব্বাসের বিধ্বংসী বোলিংয়ে নতুন কোন গল্প রচনা করতে পারেনি তারা। ৩৭৩ রানের বিশাল ব্যবধানেই জয় পেয়েছে পাকিস্তান। ফলে দুই টেস্ট সিরিজে ১-০তে জয় পেল সরফরাজ আহমেদের দল।

দুবাই টেস্টে অবিশ্বাস্য ব্যাটিং শৈলী উপহার দিয়ে ম্যাচ বাঁচিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। অবুধাবিতেও এমন কিছুর প্রত্যাশা করেছিল দলটি। তবে মোহাম্মদ আব্বাসের বিধ্বংসী বোলিংয়ে নতুন কোন গল্প রচনা করতে পারেনি তারা। ৩৭৩ রানের বিশাল ব্যবধানেই জয় পেয়েছে পাকিস্তান। ফলে দুই টেস্ট সিরিজে ১-০তে জয় পেল সরফরাজ আহমেদের দল।

রানের হিসেবে এটা পাকিস্তানের টেস্ট ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয়। এর আগের বড় জয়টিও ছিল অসিদের বিপক্ষেই। এবং এই আবুধাবির মাঠেই। ২০১৪ সালের অক্টোবরে ৩৫৬ রানের জয় পেয়েছিল পাকিস্তান।

ধাক্কাটা আগের দিনই পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ৫৩৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় দুবাই টেস্ট বাঁচানোর মূল কারিগর উসমান খাওয়াজাকে ওপেনিংয়ে পায়নি তারা। ইনজুরির কারণে শেষ পর্যন্ত ব্যাটিংই করতে পারেননি এ ব্যাটসম্যান। তবে শুরুটা খুব খারাপ করেনি দলটি। এক পর্যায়ে দলের সংগ্রহ ছিল এক উইকেটে ৭১ রান। কিন্তু এরপরই শুরু হয় আব্বাসের তাণ্ডব। ৭ রানের ব্যবধানে চার অসি ব্যাটসম্যানকে কুপোকাত করেন তিনি। তাতেই ভেঙে পড়ে অসিদের ইনিংস।

এরপর ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে মিশেল স্টার্ককে নিয়ে অবশ্য চেষ্টা চালিয়েছিলেন মার্নাস লাবুশেন। ৬৭ রানের জুটিও গড়েছিলেন তারা। কিন্তু এরপর ইয়াসির শাহর ঘূর্ণিতে পড়ে আর কুলিয়ে উঠতে পারেনি দলটি। ১৯ রান করতেই শেষ চার উইকেট হারায় তারা। ফলে ১৬৪ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীদের ইনিংস। পাকিস্তান পায় ৩৭৩ রানের বিশাল জয়।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রানের ইনিংস খেলেছেন লাবুশেন। এছাড়া ট্রাভিস হেড ৩৬, ফিঞ্চ ৩১ ও স্টার্ক ২৮ রান করেন। পাকিস্তানের পক্ষে ৬২ রান খরচ করে ৫টি উইকেট পান আব্বাস। ৪৫ রানের বিনিময়ে ইয়াসির শাহর শিকার ৩টি। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ২৮২

দ্বিতীয় ইনিংস: ৪০০/৯ (ডিঃ)

অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস: ১৪৫

দ্বিতীয় ইনিংস: ১৬৪ (ফিঞ্চ ৩১, শন মার্শ ৪, হেড ৩৬, মিচেল মার্শ ৫, লাবুশেন ৪৩, পেইন ০, স্টার্ক ২৮, সিডল ৩, লায়ন ৬*, হল্যান্ড ৩; আব্বাস ৬২/৫, হামজা ১/৪০, ইয়াসির ৩/৪৫, বিলাল ০/১২)।

ফলাফল : পাকিস্তান ৩৭৩ রানে জয়ী।

Comments

The Daily Star  | English

Babar Ali: Another Bangladeshi summits Mount Everest

Before him, Musa Ibrahim (2010), M.A. Muhit (2011), Nishat Majumdar (2012), and Wasfia Nazreen (2012) successfully summited Mount Everest. Mohammed Khaled Hossain summited Mount Everest in 2013 but died on his way down

1h ago