গাজীপুর সিটি নির্বাচন

ফল ঘোষণা কেন্দ্রের সামনে বাড়ছে টেবিল ঘড়ি সমর্থকদের ভিড়

সর্বশেষ রাত সাড়ে ১১টার দিকে মোট ৪৮০টি কেন্দ্রের মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তা ঘোষণা করেছেন ২২০টি কেন্দ্রের বেসরকারি ফলাফল। ২২০ কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে পড়েছে ১ লাখ ১ হাজার ৫৪৬ ভোট এবং টেবিল ঘড়ি প্রতীকে পড়েছে ১ লাখ ১৮ হাজার ২৮৩ ভোট।
ফলাফল ঘোষণা কেন্দ্রে মা জায়েদা খাতুনের নির্বাচনের ফলাফল জানতে বসে আছেন জাহাঙ্গীর আলম। ছবি: রাশেদ সুমন/স্টার

সময় যত গড়াচ্ছে ততই ভিড় বাড়ছে বঙ্গতাজ মিলনায়তনের সামনের সড়কে। গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হচ্ছে এখানেই।

ফলাফল ঘোষণার সময় যখনই বলা হচ্ছে যে টেবিল ঘড়ি এগিয়ে আছে, তখনই মিলনায়তনের সামনের সড়কে ভিড় করা জনতা সমস্বরে চিৎকার উঠছে, দিচ্ছে টেবিল ঘড়ি ও মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের পক্ষে স্লোগান।

ঠিক বিপরীত চিত্র দেখা যায়, যখন ঘোষণা আসে নৌকা এগিয়ে আছে। তবে, পার্থক্য এতটুকুই, এই ভিড়ের মাঝে নৌকার সমর্থক সংখ্যা তুলনামূলক কম।

সময়ের সঙ্গে বঙ্গতাজ মিলনায়তনের সামনের সড়কে বাড়ছে টেবিল ঘড়ির সমর্থকদের ভিড়। ছবি: সাইম বিন মুজিব/স্টার

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার পর এই মিলনায়তনে অবস্থিত নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে ফলাফল ঘোষণা শুরু করেন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম।

ফলাফল ঘোষণা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই সেখানে উপস্থিত হন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের ছেলে ও গাজীপুর সিটির সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। তবে, সেখানে দেখা মেলেনি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খানের।

মিলনায়তনের বাইরের সড়কে উৎসুক জনতার ভিড়ের কারণে সেখানে যান চলাচলেও ব্যাঘাত ঘটছে। রাস্তার দুপাশে খানিকটা যানজটেরও তৈরি হয়েছে গাড়িগুলো ধীরে চলার কারণে।

কথা হয় মিলনায়তনের বাইরে ভিড় করা ২ জনের সঙ্গে—মো. আলামিন ও মো. শহিদুল ইসলাম। ২ জনই গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুরের ভোটার এবং একটি টেক্সটাইল মিলের শ্রমিক।

তারা জোর দিয়ে বলেন যে জায়েদা খাতুনের জয়ের ব্যাপারে তারা নিশ্চিত।

কিন্তু কেন তাদের এমন মনে হচ্ছে? জানতে চাইলে আলামিন বলেন, 'জনসংযোগের সময় জায়েদা খাতুনের ওপর হামলা করা অন্যায় হয়েছে। তিনি একজন বয়স্ক মানুষ। কী দরকার ছিল তার ওপর হামলা করার? তাকে এভাবে অপমান করার বিষয়টি অনেকে ভালোভাবে নেননি।'

আলামিনের মতো একই কথা বলেন সঙ্গে থাকা শহিদুল।

সর্বশেষ রাত সাড়ে ১১টার দিকে মোট ৪৮০টি কেন্দ্রের মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তা ঘোষণা করেছেন ২২০টি কেন্দ্রের বেসরকারি ফলাফল। ২২০ কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে পড়েছে ১ লাখ ১ হাজার ৫৪৬ ভোট এবং টেবিল ঘড়ি প্রতীকে পড়েছে ১ লাখ ১৮ হাজার ২৮৩ ভোট।

বাকি সাড়ে ৪০০ কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণার পর জানা যাবে কে হতে যাচ্ছেন গাজীপুর সিটির নতুন মেয়র।

সময়ের সঙ্গে বঙ্গতাজ মিলনায়তনের সামনের সড়কে বাড়ছে টেবিল ঘড়ির সমর্থকদের ভিড়। ছবি: মামুনুর রশীদ/স্টার

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আজ সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলেছে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

সকাল ৯টার দিকে গাজীপুরের ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডের টঙ্গী দারুস সালাম মাদরাসা কেন্দ্রে ভোট দেওয়া শেষে নৌকা প্রতীক নিয়ে মেয়র পদপ্রার্থী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান বলেছিলেন, 'সবসময়ই আমি জনগণের রায়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আজকে জনগণ যাকে নির্বাচিত করবে, আমি সেই রায় অবশ্যই মেনে নেব।'

কানাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়ে জায়েদা খাতুন বলেছিলেন, 'জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী, হানড্রেড পারসেন্ট।'

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ভোটের পরিবেশ সম্পর্কে জায়েদা খাতুনও বলেছিলেন, 'আমার কোনো অভিযোগ নেই। এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি ভালো আছে।'

তবে, বেশকিছু কেন্দ্রে নৌকার এজেন্টদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল, তারা বাকি প্রতীকের এজেন্টদের ভোটকেন্দ্রে থাকতে দেননি।

Comments

The Daily Star  | English