আচমকা ওয়ানডে থেকে ফিঞ্চের অবসর ঘোষণা

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে থাকার কথা ছিল তার। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাটে রান খরায় বিদায়ের ডাক শুনতে পাচ্ছিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। দেরি না করে ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি
Aaron Finch
ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে থাকার কথা ছিল তার। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাটে রান খরায় বিদায়ের ডাক শুনতে পাচ্ছিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। দেরি না করে ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। তবে চালিয়ে যাবেন টি-টোয়েন্টি, আসছে বিশ্বকাপে নেতৃত্বও দেবেন অস্ট্রেলিয়াকে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, রোববার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ হবে ফিঞ্চের একদিনের ক্রিকেট থেকে  বিদায়ের মঞ্চ। ১৪৬তম ওয়ানডে খেলে এই সংস্করণকে বিদায় জানাবেন তিনি।

এই সংস্করণে অস্ট্রেলিয়াকে ৫৪ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন ফিঞ্চ। ব্যাট হাতে করেছেন ১৭ সেঞ্চুরি। ওয়ানডে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে তারচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি আছে কিংবদন্তি রিকি পন্টিং (২৯), ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্ক ওয়াহর (১৮)।

বিদায় বিবৃতিতে ৩৬ বছরের ফিঞ্চ বলেন সময় এসেছে নতুন নেতা খুঁজে নেওয়ার, 'দুর্দান্ত সময় কেটেছে, অবিশ্বাস্য সব স্মৃতি জমা হয়েছে। দুর্দান্ত ওয়ানডে দলের অংশ হতে পারা আমার জন্য সৌভাগ্যের। আমার সঙ্গে যারা খেলেছে, যারা পেছনে ছিল সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। পরের বিশ্বকাপ জিততে নতুন নেতা খুঁজে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার এটাই সেরা সুযোগ।'

ওয়ানডেতে চলতি বছর চরম বাজে সময় পার করছিলেন ফিঞ্চ। ১৩ ম্যাচে মোটে করেছেন ১৬৯ রান। গত ১২ ইনিংসের ৫টিতেই আউট হয়েছেন শূন্য রানে। ঘরের মাঠে ব্যাটিং ব্যর্থতায় হারতে হয়েছে জিম্বাবুয়ের কাছেও।

শেষ ম্যাচের আগে ১৪৫টি ওয়ানডেতে ৩৯.১৩ গড়ে ৫ হাজার ৪০১ রান ফিঞ্চের। ১৭ সেঞ্চুরি করে এই সংস্করণে তিনি দেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ সেঞ্চুরিয়ান।

২০২৩ সালে ভারতে ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত নেতৃত্ব ও খেলা চালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা থাকলেও বাজে ফর্ম বদলে দেয় ছবি। ফিঞ্চ জানান এটাই সরে যাওয়ার সেরা সময়। এক বছরের কিছুটা বেশি সময় হাতে থাকায় নতুন অধিনায়ক সব গুছিয়ে নিতে পারবে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী নিক হকলি বিবৃতিতে ফিঞ্চের প্রতি শুভকামনা জানিয়েছেন'অস্টেলিয়ান ক্রিকেটের পক্ষ থেকে অ্যারনকে অভিনন্দন জানাই তার অবদানের জন্য। সে একদিনের ক্রিকেটকে অনেক কিছু দিয়েছে, অস্ট্রেলিয়াকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করেছে।।

২০১৩ সালে ওয়ানডে অভিষেক হয় ফিঞ্চের। ২০১৮ সালে ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব পান ফিঞ্চ। ২০১৯ সালে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তার অধীনে সেমিফাইনাল পর্যন্ত খেলতে পারে ইংল্যান্ড।

টি-টোয়েন্টিতে অবশ্য ছন্দে আছেন এই ডানহাতি। তার নেতৃত্বে গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয় অস্ট্রেলিয়া। কুড়ি ওভারের সংস্করণে এটাই অজিদের প্রথম মুকুট। ফিঞ্চের নেতৃত্বেই আগামী অক্টোবরে ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি শিরোপা ধরে রাখার মিশনে নামবে অস্ট্রেলিয়া।

Comments

The Daily Star  | English

Old, unfit vehicles taking lives

The bus involved in yesterday’s crash that left 14 dead in Faridpur would not have been on the road had the government not given into transport associations’ demand for keeping buses over 20 years old on the road.

40m ago