ক্রিকেট

মেয়ে ক্রিকেটার আর মা আম্পায়ার

সালিমা ইমতিয়াজ ও কাইনাত ইমতিয়াজ। পাকিস্তানের এই মা-মেয়ে দুজনেই এসেছেন সিলেটে। দুজনের ভূমিকা একদম ভিন্ন
কাইনাত ও সালিমা ইমতিয়াজ

সালিমা ইমতিয়াজ ও কাইনাত ইমতিয়াজ। পাকিস্তানের এই মা-মেয়ে দুজনেই এসেছেন সিলেটে। দুজনের ভূমিকা একদম ভিন্ন। আম্পায়ার হিসেবে এশিয়া কাপ পরিচালনা করতে এসেছেন সালিমা। আর কাইনাত খেলবেন পাকিস্তান দলের হয়ে।

এবার মেয়েদের এশিয়া কাপে নারীরাই পরিচালনা করবেন সবগুলো ম্যাচ। শনিবার ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচে আন্তর্জাতিক আম্পায়ার হিসেবে অভিষেক হয় সালিমার।

মায়ের অভিষেকের সময় অনুশীলন সেরে টিম হোটেলে ছিলেন কাইনাত। সেখান থেকেই টুইট করে মাকে জানিয়েছেন শুভেচ্ছা, 'আমার মা আম্পায়ার হিসেবে এবারের এশিয়া কাপ পরিচালনা করছেন। মায়ের এই অর্জনে আমি কতটা গর্বিত তা বলে বোঝানো সম্ভব না। আম্পায়ার হিসেবে পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করার স্বপ্ন দেখে আসছেন তিনি। তার স্বপ্ন পূরণ হলো আজ। আমি ভীষণ রোমাঞ্চিত।'

সালিমা নিজেও অবশ্য ক্রিকেটার ছিলেন। পাকিস্তানের হয়ে একটি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেছেন তিনি। তবে ক্রিকেটার হিসেবে মাকে ছাপিয়ে মেয়ে বেশ এগিয়ে গেছেন। ৩০ পেরুনো কাইনাত ১৫টি ওয়ানডে ও ২০টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। ডানহাতি এই পেসারকে খেলতে দেখা যাবে এবারের এশিয়া কাপেও।

এবারের এশিয়া কাপে ৯ জন  নারী আম্পায়ার পেয়েছেন ম্যাচ পরিচালনার ভার। ভারত থেকে আছেন ব্রিন্দা গানশিয়াম রাথি ও গায়েত্রী ভেনুগোপানাল। পাকিস্তানের সালিমার সঙ্গে হুমায়রা ফারাহ। শ্রীলঙ্কার লিন্ডামুলাগে দেদুনু ভিন্দা উইজায়ানথি ডি সিলভা ও নিমালি দিনুশি পেরেরা।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের হেমাঙ্গি ইয়েরজাল, মালয়েশিয়ার নূর হিজরাহ আমাত সুজাঙ্গি। এমনকি কাতারেরও একজন আছেন। তিনি হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত শিভানি মিশ্রা। দুর্ভাগ্যজনকভাবে স্বাগতিক বাংলাদেশের কোন নারী আম্পায়ার এখনো এই পর্যায়ে যেতে পারেননি।

আম্পায়ার ছাড়াও ম্যাচ রেফারি দুজনও নারী। শ্রীলঙ্কার ভেনেসা রেচ ডি সিলভা ও ভারতের শারভা লক্ষ্মী গানডিকোটা থাকছেন সবগুলো ম্যাচে।

Comments