ক্রিকেট

তৃষ্ণার হ্যাটট্রিকে মালয়েশিয়াকে বিধ্বস্ত করল বাংলাদেশ

থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর পর পাকিস্তানের কাছে হেরে কেঁপে উঠেছিল বাংলাদেশ। এবার মালয়েশিয়াকে বিধ্বস্ত করে ফের নিজেদের চাঙ্গা করল নিগার সুলতানা জ্যোতির দল। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ  জিতেছে  ৮৮  রানের বড় ব্যবধানে।
fariha trishna
ফাইল ছবি: এসিসি

মন্থর উইকেটে মালয়েশিয়ার জন্য লক্ষ্যটা ছিল বেশ চ্যালেঞ্জিং। অভিষেকে নেমে শুরুতেই ফারিহা তৃষ্ণা তাদের কাজটা একদমই অসম্ভব বানিয়ে দেন। তৃষ্ণার হ্যাটট্রিক পর উইকেট ফেলতে থাকেন ফাহিমা খাতুন, রুমানা আহমেদরা। খাবি খেতে খেতে ৫০  রানের আগেই অলআউট হয়ে যায় তারা।

থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর পর পাকিস্তানের কাছে হেরে কেঁপে উঠেছিল বাংলাদেশ। এবার মালয়েশিয়াকে বিধ্বস্ত করে ফের নিজেদের চাঙ্গা করল নিগার সুলতানা জ্যোতির দল। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ  জিতেছে  ৮৮  রানের বড় ব্যবধানে।

বৃহস্পতিবার আগে ব্যাটিং বেছে মুরশিদা খাতুন ও নিগার সুলতানা জ্যোতির ফিফটিতে ১২৯ করেছিল বাংলাদেশ। ম্যাচের কোন পর্যায়েই লড়াইয়ের পরিস্থিতি তৈরি করতে না পারা মালয়েশিয়া করতে পারে ৪১ রান। তাদের কোন ব্যাটারই যেতে পারেননি দুই অঙ্কে। 

১৩০ রানের লক্ষ্য নেমে পঞ্চম ওভার পর্যন্ত উইকেটবিহীন কাটিয়ে দিয়েছিল মালয়েশিয়া। কিন্তু স্কোর বোর্ডে মোটে ছিল ১২ রান। ৬ষ্ঠ ওভারের মন্থর রানের চাকার পাশাপাশি শুরু হয় উইকেট পতনের মিছিল। বাঁহাতি পেসার তৃষ্ণার ভেতরে ঢোকানো তিনটি ডেলিভারি পর পর তিন বলে এনে দেয় উইকেট। অভিষেকেই হ্যাটট্রিকের কীর্তিতে উদ্ভাসিত হন তিনি।

৬ষ্ঠ ওভারের দ্বিতীয় বলে মালয়েশিয়ার অধিনায়ক উইনফ্রেড দুরাইসিঙ্গামকে বোল্ড করে উইকেট নেওয়া শুরু তৃষ্ণার। পরের বলে একইভাবে তিনি ছাঁটেন মাস ইলিয়াকে।  মাস লাইন মিস করে হন এলবিডব্লিউ। হ্যাটট্রিক বলটাও একই জায়গায় রাখেন তৃষ্ণা। ব্যাটার মাহিরাহ ইসমাইলও খুঁজে পাননি উত্তর। তার স্টাম্প উড়ে যায়। হ্যাটট্রিকের আনন্দে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন তিনি।

লেগ স্পিনার ফাহিমা বল করতে এসেই বোল্ড করে দেন ইলিয়াস হান্টারকে। হামিজা হাশিমও কাটা পড়েন তার বলে।

বাঁহাতি স্পিনার সানজিদা আক্তার মেঘলা তুলে নেন আইনা নেজওয়াকেল। নূর আরিয়ানা ও নূর জাকারিয়াকে ফেরান আরেক লেগ স্পিনার রুমানা। মেঘলা ও সালমা মুড়ে দেন ইনিংস।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে গিয়ে প্রথম বলেই শামীমা সুলতানাকে হারিয়ে ফেলেছিল বাংলাদেশ। তিনে নেমে ফারজানা হক পিংকি ছিলেন আড়ষ্ট। ৮ ওভার পর্যন্ত রানের চাকা ছিল শ্লথ। এরপর খেলা ঘুরিয়ে দেন নিগার ও মুরশিদা।  চতুর্থ উইকেটে ৬৩ বলে ৮৭ রানের জুটি গড়েন নিগার ও মুরশিদা। যাতে ৩৪ বলে ৫৩ করে অবদান নিগারের। বাংলাদেশ অধিনায়ক তার ইনিংসে মেরেছেন ৬ চার ও ১ ছক্কা। শেষ দিকে রান আউট হওয়া বাঁহাতি মুরশিদা ৬ চারে করেন ৫৪। 

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

A section of government officials are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Center has found.

3h ago