সবাই আমাকে নিয়ে অনেক আত্মবিশ্বাসী: মিরাজ

সবশেষ এশিয়া কাপ থেকে মেহেদী হাসান মিরাজকে ওপেনিংয়ে খেলাচ্ছে বাংলাদেশ।
ছবি: এএফপি

সবশেষ এশিয়া কাপ থেকে মেহেদী হাসান মিরাজকে ওপেনিংয়ে খেলাচ্ছে বাংলাদেশ। তীব্র প্রয়োজনের খাতিরে নতুন এই পজিশনে নেমে এখন পর্যন্ত কার্যকর ভূমিকা রেখেছেন তিনি। অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার দলের ও নিজের আত্মবিশ্বাসকে পুঁজি করে আরও ভালো করার প্রত্যাশা জানিয়েছেন।

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হচ্ছে আগামীকাল শুক্রবার। উদ্বোধনী ম্যাচে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন দল। ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় সকাল আটটায়। এই সিরিজের পর নিউজিল্যান্ডের তাসমান সাগর পাড়ের প্রতিবেশি অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশ নেবে টাইগাররা।

মেকশিফট ওপেনার হিসেবে এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথমবার খেলেন মিরাজ। ২৬ বলে ৩৬ রানের ঝড়ো ইনিংসে টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থার প্রতিদান দেন তিনি। ফলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে গত মাসে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজেও ওপেনিংয়ে পাঠানো হয় তাকে। প্রথম ম্যাচে ১৪ বলে ১২ করে আউট হয়ে গেলেও দ্বিতীয়টিতে ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতেন মিরাজ। ৩৭ বলে ৫ চারে সেদিন ৪৬ রান এসেছিল তার ব্যাট থেকে।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পাঠানো ভিডিও বার্তায় মিরাজ নিজেকে নিয়ে ছিলেন ইতিবাচক, 'যেহেতু আমি ওপেনিংয়ে একটা সুযোগ পেয়েছি, তো চেষ্টা করছি ভালো ক্রিকেট খেলার জন্য এবং আমি উপভোগ করছি। সবাই আমাকে সহযোগিতা করছে, এই জিনিসটা ভালো লাগছে। অনুশীলন যখনই করছি, আমাকে সবাই সাহায্য করছে এবং আমাকে নিয়ে অনেক আত্মবিশ্বাসী। আমি নিজেও অনেক আত্মবিশ্বাসী। এখন শুধু মাঠে ভালো ক্রিকেট খেলার অপেক্ষায়।'

কন্ডিশন ও প্রতিপক্ষ বিবেচনায় ত্রিদেশীয় এই টি-টোয়েন্টি সিরিজ মূলত বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের প্রস্তুতির আদর্শ মঞ্চ। মিরাজ বলেন, 'আমাদের খুব ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। আমরা যে তিনদিন অনুশীলন করেছি, খুব ভালো অনুশীলন হয়েছে। বোলাররা বল করেছে, ব্যাটাররা ব্যাট করেছে। দুটি গ্রুপে আমাদের অনুশীলন হয়েছে এবং আমরা সুনির্দিষ্টভাবে অনুশীলন করেছি। যার যতটুকু দরকার, ততটুকুই আমরা করেছি। বিশেষ করে, আমি ব্যাট করেছি এবং বলও করেছি। পেস বোলাররা স্পট বোলিং করেছে। যার যতটুকু দরকার, খুব ভালো প্রস্তুতি হয়েছে।'

নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন বরাবরই বাংলাদেশের জন্য ভীষণ চ্যালেঞ্জিং। এবার তা আরও বেশি। কারণ, অক্টোবর মাস হওয়ায় সেখানে রীতিমতো হাড় কাঁপানো শীত। ক্রাইস্টচার্চে বরফও পড়ছে। তবে মিরাজ জানান মানিয়ে নেওয়ার কথা, 'কোচিং স্টাফ যারা আছেন, তারা খুব ভালো সহায়তা করেছেন আমাদের। এখানে যেহেতু আমাদের জন্য সহজ ছিল না অনুশীলন সেশনটা, কারণ এখানে একটু বেশি ঠাণ্ডা, তারপরও সবাই খুব ভালোভাবে মানিয়ে নিয়েছে। আমাদের দলের জন্য এটা ইতিবাচক দিক।'

Comments

The Daily Star  | English

Trial of murder case drags on

Even 11 years after the Rana Plaza collapse in Savar, the trial of two cases filed over the incident did not reach any verdict, causing frustration among the victims.

9h ago