ক্রিকেট

আফিফ-নাঈমকে সুযোগ দিতে চান তামিম

বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের একাদশ নিয়ে সংশয়ের জায়গা খুব বেশি নেই। বোলিং আক্রমণ ছাড়া বাকি সব পজিশনই থিতু।
Afif Hossain & Naim Sheikh

আফগানিস্তান সিরিজের পর বিশ্বকাপের আগে আর যাচাই-বাছাইয়ের সুযোগ সীমিত। কারণ এরপর এশিয়া কাপে সেরা সমন্বয়ই নামাতে চাইবে দল। তার আগে তাই সবাইকে অন্তত একটি করে সুযোগ দেওয়ার তাগিদ দেখছেন তামিম ইকবাল। বিশেষ করে স্কোয়াডে থাকা বাড়তি দুই ব্যাটার নাঈম শেখ ও আফিফ হোসেনের নাম উল্লেখ কিছু পরিকল্পনার কথা তুলে ধরলেন তিনি।

বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের একাদশ নিয়ে সংশয়ের জায়গা খুব বেশি নেই। বোলিং আক্রমণ ছাড়া বাকি সব পজিশনই থিতু। তামিম ইকবাল, লিটন দাসের পর একে একে নামেন নাজমুল হোসেন শান্ত, তাওহিদ হৃদয়, সাকিব আল হাসান আর মুশফিকুর রহিম।

পাঁচ বোলার নাকি বাড়তি ব্যাটার, এই চিন্তায় ঠিক হয় সাতের ব্যাটার। বাড়তি বোলার খেলালে মেহেদী হাসান মিরাজকে পাওয়া যায় সেখানে।

তবে বিশ্বকাপের জন্য স্কোয়াডের ব্যাকআপ ব্যাটারদেরও যাচাই করার ব্যাপার আছে। ওপেনিংয়ে ব্যাকআপ হিসেবে যেমন এই সিরিজে আছেন নাঈম শেখ, মিডল অর্ডারে আফিফ হোসেন।  এই দুজনেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে কীভাবে সুযোগ দেওয়া যায় নিয়ে ভাবনা বাংলাদেশ দলের।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে তামিম জানালেন এই সিরিজে সবাইকেই সুযোগ দিতে চান তারা, 'এই একটা সিরিজে আমরা চেষ্টা করব সবাইকে একটা হলেও সুযোগ দেওয়ার। তবে এটি নিশ্চিত নয় যে, এরকমই হবে। আমরা অবশ্য চেষ্টা করব, বিশ্বকাপের আগে তাকে (নাঈম) কিছু গেম টাইম দিতে। নেটে সে দারুণ ব্যাট করছে। তাকে খুবই ভালো মনে হচ্ছে। যদি ওই রকম সুযোগ আসে, আমরা অবশ্যই (সুযোগ দিতে) চেষ্টা করব। কারণ আমি কখনও মনে করি না যে, রিজার্ভে যারা আছে, ওরা সরাসরি কোনো একটা বড় ইভেন্টে ম্যাচ খেলুক। আমরা যদি তাদেরকে ২-৩টা ম্যাচও সুযোগ দিতে পারি, তাহলে এটি ওই ক্রিকেটারের জন্যও ভালো হবে।'

তামিম ইঙ্গিত দিলেন বাড়তি বোলার নাকি ব্যাটার তার উপর নির্ভর করবে আফিফের খেলা, না খেলাও,  'আমাদের স্কোয়াডে দুইজন (বাড়তি) ব্যাটসম্যান আছে- আফিফও কিন্তু আছে। তাকেও খেলানোর একটা তাগিদ আছে। যে একাদশ আমরা ঠিক করেছি, আপনারা কালকে দেখার পর একটা পরিষ্কার ধারণা পাবেন যে, আমরা কোন পথে যাচ্ছি। একজন বাড়তি ব্যাটসম্যান নাকি গত সিরিজের মতো একজন বাড়তি বোলার নিয়ে যাচ্ছি।' 

একাদশের সমন্বয় নির্ভর করে প্রতিপক্ষের কথা বিবেচনা করেও। অধিনায়ক জানান, দলের প্রয়োজন ও বিশ্বকাপ ভাবনা সব মাথায় রেখেই হিসেব করতে হচ্ছে তাদের, 'এই সমন্বয় মূলত করা হয়, প্রতিপক্ষ ও প্রতিপক্ষের শক্তির ওপর। তো ওভাবেই করে যাব, যদি সুযোগ দেওয়া যায় তাহলে ভালো হবে। তবে এটি একদম জরুরি নয়। কারণ কোনো জিনিস যেটা ভালো চলছে, অপ্রয়োজনে সেটা আপনার ভাঙার দরকার নেই। তবে হ্যাঁ একইসঙ্গে এটা বলব যে, আমি কখনও চাই না যে, বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ একটা ম্যাচে আমাদের কেউ যদি ফিট না থাকি, তাহলে আফিফ বা নাঈম, যাকেই নামাই না কেন, এটি তার জন্য ঠিক হবে না। ওকে আমরা যদি গেম টাইম দিতে পারি, তাহলে ভালো হবে।' 

'কিন্তু আমরা এমন একটা পরিস্থিতিতে আছি, এই একটা সিরিজের পর এশিয়া কাপ, এরপর বিশ্বকাপ। এশিয়া কাপে সবাই জিততে চায়, বিশ্বকাপে সবাই জিততে চায়। তো যদি সুযোগ আসে, আমরা দেব। যদি না আসে, তাহলে তাদের প্রস্তুত থাকতে হবে যখনই সুযোগ আসবে।'

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives across the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

4h ago