শোয়েব মাকসুদ কি আসলেই টাইমড আউট হয়েছিলেন?

আইসিসির নিয়ম অনুসারে, যতক্ষণ সময় তিনি মাঠে ছিলেন না, ওই সময়টুকুর বিপরীতে মুলতানের ইনিংসে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরই তিনি ব্যাট করতে পারতেন।
ছবি: পিসিবি

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে টাইমড আউট হন। এরপর বিতর্কের বন্যা বয়ে যায় ক্রিকেটবিশ্বে। এই ধরনের বিরল আউটের দিকে এখন তাই বাড়তি নজর থাকে সবার। এবার পাকিস্তানের ঘরোয়া টুর্নামেন্টে একটি টাইমড আউটের ঘটনা ঘটেছে, এমন খবর ছড়িয়ে পড়েছে সংবাদমাধ্যমে। যদিও আসল ঘটনা ভিন্ন। আদতে শোয়েব মাকসুদ টাইমড আউটই হননি!

শনিবার পাকিস্তানের ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপে মুলতানের হয়ে ব্যাটিং করতে ক্রিজে আসেন মাকসুদ। ডানহাতি এই ব্যাটারকে এরপর কোনো বল মোকাবিলা করতে না দিয়েই ফিরিয়ে দেন আম্পায়ার। এটুকু পড়ে ম্যাথিউস-কাণ্ডের পর টাইমড আউটের কথাই হয়তো মনে পড়বে সবার! তবে ভিন্ন কারণেই মাকসুদকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান অন-ফিল্ড আম্পায়াররা।

করাচিতে আজাদ জম্মু ও কাশ্মীরের বিপক্ষে ১৩২ রানের লক্ষ্যে মাকসুদের দল মুলতান ব্যাট করতে নামে। প্রথম ওভারের শেষ বলে তারা প্রথম উইকেট হারানোর পর ব্যাট করতে নামেন মাকসুদ। কিন্তু তখনও তার অফফিল্ডে কাটানো সময়ের সমান পরিমাণ সময় পেরিয়ে যায়নি মুলতানের ব্যাটিং ইনিংসে। খোলাসা করে বলা যাক।

আজাদ জম্মু ও কাশ্মীরের ইনিংসের শেষদিকে ফিল্ডিংয়ে মাঠে ছিলেন না মাকসুদ। যতক্ষণ সময় তিনি মাঠে ছিলেন না, ওই সময়টুকুর সমান পরিমাণ সময় মুলতানের ইনিংসে পেরিয়ে যাওয়ার পরই তিনি ব্যাট করতে পারতেন। প্রথম ওভারেই জিশান আশরাফ আউট হয়ে গেলে ব্যাটিং পজিশন অনুসারে ক্রিজে যান মাকসুদ। কিন্তু আম্পায়াররা তাকে ফিরিয়ে দেন। তখন ওয়ান ডাউনে মাকসুদের জায়গায় নতুন ব্যাটার হাসিবুল্লাহ খান নামেন ব্যাটিংয়ে।

আইসিসির প্লেয়িং কন্ডিশন অনুসারে, মাঠের বাইরে কোনো খেলোয়াড় যত সময় থাকবেন, ফেরার পর 'পেনাল্টি টাইম' হিসেবে ততক্ষণ মাঠের ভেতরে কাটানোর পরই তিনি বোলিং অথবা ব্যাটিং করতে পারবেন। ৮ মিনিটের কম সময় মাঠের বাইরে থাকলে অবশ্য 'পেনাল্টি টাইম' কাটাতে হয় না। আর ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে ৫ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর আর 'পেনাল্টি টাইম' খাটে না।

অফফিল্ডে থাকার কারণে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সময় কাটিয়ে এরপর যদিও আবার ব্যাটিংয়ে যান মাকসুদ। ৬৬ রানে মুলতানের দ্বিতীয় উইকেট পড়ে যাওয়ার পর ক্রিজে নামেন তিনি। ১২ বলে ১২ রানের বেশি অবশ্য করতে পারেননি ডানহাতি এই ব্যাটার। তবে পাকিস্তানের হয়ে এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে ৫৫ ম্যাচ খেলা মাকসুদের দল জিতেছে ঠিকই। ১৫ বল হাতে রেখে আজাদ জম্মু ও কাশ্মিরকে ৭ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে মুলতান।

Comments