জিততে পারলে অনেক বেশি স্পেশাল হতো: সৌম্য

দল না জেতায় ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেও হতাশায় পুড়ছেন সৌম্য।
Soumya Sarkar

তুমুল সমালোচনার ঝাঁজ সামলে দারুণ এক রেকর্ডময় সেঞ্চুরিতে দিনটা রাঙিয়েছিলেন সৌম্য সরকার। তবে তার রঙিন দিনে বাকিরা থাকলেন বিবর্ণ, তিনি ছাড়া জ্বলে উঠতে পারেননি আর কেউ। তিনশোর নিচে পুঁজি নিয়ে তাই নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে পেরে উঠেনি বাংলাদেশ। দল না জেতায় ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেও হতাশায় পুড়ছেন সৌম্য।

নেলসনে বুধবার ১৫১ বলে ১৬৯ রানের ইনিংস খেলেন সৌম্য। নিউজিল্যান্ডের মাঠে এশিয়ান ব্যাটারদের মধ্যে খেলেন সর্বোচ্চ রানের ইনিংস, ছাড়িয়ে যান কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের এক রেকর্ড।

তবে এমন দিনে পরাজিত দলে থাকতে হচ্ছে তাকে। তিনি ১৬৯ রান করলেও ব্যাটিং স্বর্গে দল যে করতে পারে কেবল ২৯১ রান। ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে নিতে তাই সমস্যা হয়নি কিউইদের।

দল হারলেও চোখ ধাঁধানো ইনিংসে ম্যাচ সেরা হয়েছেন সৌম্য। তবে দল না জেতায় এই অর্জন উপভোগ করতে পারছেন না, 'সেঞ্চুরি করতে পারায় খুশি কিন্তু দল না জেতায় হতাশ। যদি জিততে পারতাম তাহলে এটা অনেক বেশি স্পেশাল হতো।'

টস হেরে ব্যাটিং পেয়ে অখুশি ছিলেন না বাংলাদেশ অধিনায়ক। উইকেট ছিলো দারুণ, কন্ডিশন আদর্শ। তবে সৌম্য ছাড়া আরেক পাশ ছিলো নড়বড়ে। ১০ ওভারের আগেই তাই ৪৪ রানে ৩ উইকেট পড়ে যায় বাংলাদেশের। সৌম্য মনে করেন পাওয়ার প্লেতে তিন উইকেট না পড়লে পুরো খেলাই হতো ভিন্ন,  'পাওয়ার প্লেতে যদি আমরা তিন উইকেট না হারাতাম তাহলে ভিন্ন হতো। আমরা মাঝে জুটি পেয়েছিলাম কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ফেইজে উইকেট হারিয়েছি। যদি তা না হতো তাহলে বড় পুঁজি হতে পারত।'

বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এক ম্যাচ খেলিয়েই বাদ দেওয়া হয় সৌম্যকে। এর আগের ম্যাচ তিনি খেলেছিলেন ২০২১ সালে। লম্বা বিরতি দিয়ে এক-দুই ম্যাচ খেলে বাদ পড়া সৌম্য বিশ্বকাপের পর ফেরেন আবার। ফেরার ম্যাচে ডানেডিনে আউট হন কোন রান না করে। বোলিংয়ে বাজে পারফর্ম করে সমালোচনায় বিদ্ধ হতে থাকেন। এদিনের ইনিংসের আগে অনেক ভাবনা ভিড় করার কথা ছিলো তার ভেতর। সৌম্য অবশ্য জানালেন স্রেফ বল দেখে ব্যাট চালিয়ে রান বের করার চিন্তায় ছিলেন তিনি, আমি অনেকদিন পর দলে এলাম, আমরা নেটে কঠোর পরিশ্রম করছি। খুব বেশি চিন্তা করিনি। শুধু বল দেখেছি আর নিজের খেলাটা খেলেছি।'

Comments