ক্রিকেট

বশিরের ভিসা জটিলতায় হতাশ, বিরক্ত স্টোকস

২০ বছর বয়েসী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত বশিরের জন্ম ইংল্যান্ডে সারেতে। ভারত সফরের জন্য বাকিদের সঙ্গে আবুধাবির অনুশীলন ক্যাম্পে ছিলেন তিনিও। বাকিরা ভিসা পেয়ে ভারতে গেলেও বশির পারেননি, তাকে আপাতত ফেরত পাঠানো হয়েছে দেশে। 
Shoaib Bashir & Ben Stokes

অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা তরুণ অফ স্পিনার শোয়েব বশিরকে ভারত সফরের দলে নিয়েছিল ইংল্যান্ড। তবে প্রথম টেস্টে তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। ইংল্যান্ডের বাকি খেলোয়াড়রা ভারতে গেলেও আবুধাবি থেকে লন্ডন ফিরে যেতে হয়েছে বশিরকে।

২০ বছর বয়েসী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত বশিরের জন্ম ইংল্যান্ডে সারেতে। ভারত সফরের জন্য বাকিদের সঙ্গে আবুধাবির অনুশীলন ক্যাম্পে ছিলেন তিনিও। বাকিরা ভিসা পেয়ে ভারতে গেলেও বশির পারেননি, তাকে আপাতত ফেরত পাঠানো হয়েছে দেশে।  বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া হায়দরাবাদ টেস্টে তাকে পাওয়ার সম্ভাবনা তাই নেই ইংল্যান্ডের।

এদিকে বশিরের ভিসা ইস্যুর সমাধান হয়ে যাবে বলে আশা করছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। তারা ইস্যুটির সমাধান করার জন্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে অনুরোধ করেছে।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম জানিয়েছে, আবুধাবি থেকে ভারতে উড়াল দিতে পারবেন না বলেই দেশে ফেরেন বশির। তাকে বলা হয়েছে লন্ডনে ফিরে তিনি তার ভিসার আবেদন আবার ঠিকমতো যেন ভারতীয় হাইকমিশনে জমা দেন।

ইংল্যান্ড দল আশা করছি দ্রুতই ভিসা পেয়ে এই অফ স্পিনার স্কোয়াডে যোগ দেবে। অধিনায়ক বেন স্টোকস পুরো ঘটনায় তার হতাশা আড়াল করেননি, 'ইংল্যান্ডের টেস্ট দলকে যে সমস্যায় পড়তে হয়েছে আমি চাই না এই ধরণের পরিস্থিতি হোক। বিশেষ করে একটা বাচ্চা ছেলের জন্য, তার জন্য আমার বিধ্বস্ত লাগছে।'

'অধিনায়ক হিসেবে আমি চরম হতাশ। আমরা গত ডিসেম্বরের মাঝামাঝি স্কোয়াড ঘোষণা করেছি। এখন ব্যাশ (বশির) জানতে পারছে এখনো তার ভিসা হয়নি। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক, আমি তার জন্য চরম হতাশ। ব্যাশ যেহেতু আসতে পারেনি, প্রথম টেস্ট সে ছিটকে গেল।'

গত ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলের ভারতের  ভিসা নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। আইসিসিকে এই ইস্যু সমাধান করতে অনুরোধ করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। পাকিস্তান দল শেষ পর্যন্ত ঠিকঠাকভাবে ভারতে গেলেও দেশটির বেশ কিছু সাংবাদিক ভিসা জটিলতায় পড়েন। টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে কিছু ম্যাচ মিস করেন তারা। পরে যদিও যোগ দিতে পারেন।

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

7h ago