হার্টলির ঘূর্ণিতে ভারতকে হারাল ইংল্যান্ড

ভারতকে হারিয়ে টেস্ট সিরিজে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড

মাত্র চার রানের জন্য ডাবল সেঞ্চুরি মিস করলেন অলি পোপ। তবে আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়লেও দলকে ঠিকই এনে দেন লড়াই করার মতো লিড। এরপর অভিষিক্ত টম হার্টলির বলে ধরলেন দারুণ দুটি ক্যাচ। তাতে উজ্জীবিত হয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে যেন ওঠেন হার্টলি। একাই ধসিয়ে দেন ভারতের ব্যাটিং লাইনআপ। ভারতের মাঠে অসাধারণ এক জয় তুলে নেয় বেন স্টোকসের দল।

রোববার হায়দরাবাদের রাজিব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনে এসে ২৮ রানের জয় তুলে নেয় ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ডের দেওয়া ২৩১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ২০২ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে এদিন ৪২০ রান করে অলআউট হয় ইংল্যান্ড। অথচ প্রথম ইনিংসে ১৯০ রানে লিড নিয়েছিল ভারত। ঘরের মাঠে প্রথমবারের মতো প্রথম ইনিংসে একশর বেশি লিড নিয়ে হারল তারা। 

হায়দরাবাদের উইকেট শুরু থেকেই সাহায্য করেছে স্পিনারদের। মাঝেমধ্যেই বল নিচু হয়েছে। চতুর্থ দিনে চতুর্থ ইনিংসে হুমকি স্পিনাররাই হবেন তা অনুমিতই ছিল। তাই হয়তো পার্ট-টাইম স্পিনার জো রুটকে দিয়ে ইনিংসের শুরু করে ইংলিশরা। দ্বিতীয় ওভারে বল করতে আসেন মার্ক উড। সে ওভারে উইকেটও পেতে পারতেন তিনি। চতুর্থ বলেই অধিনায়ক রোহিত শর্মার ক্যাচ দ্বিতীয় স্লিপে মিস করেন জ্যাক ক্রলি।

তবে সে স্পেলে ওই এক ওভারই করেন উড। এরপর সেই প্রান্তে অভিষিক্ত বাঁহাতি স্পিনার টম হার্টলিকে আনেন ইংলিশ অধিনায়ক বেন স্টোকস। অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান পঞ্চম ওভারে এসে দেন এই স্পিনার। ব্যক্তিগত ১৫ রানে যশস্বী জসওয়ালকে আউট করেন তিনি। অবশ্য শর্ট লেগে দারুণ ক্যাচ ধরেন পোপ। সে ওভারে শুবমান গিলকেও তুলে নেন হার্টলি। এবার সিলি পয়েন্ট থেকে দারুণ ক্যাচ লুফে নেন পোপ।

১৮তম ওভারে এরপর ভারতীয় শিবিরে বড় ধাক্কা দেন হার্টলি। এলবিডাব্লিউর ফাঁদে ফেলে রোহিতকে ফেরান তিনি। রিভিউ নিয়েও বাঁচেননি ভারতীয় অধিনায়ক। ৫৮ বলে ৩৯ রান করেন তিনি। এরপর লোকেশ রাহুলের সঙ্গে দলে হাল ধরেন আকসার প্যাটেল। ৩২ রানের জুটিও গড়েন। এ জুটিও ভাঙেন হার্টলি। চা বিরতির পর আকসারকে করা প্রথম বলে নিজেই ক্যাচ ধরে নিজের চতুর্থ শিকার ধরেন এই স্পিনার। ৪২ বলে ১৭ রান করেন আকসার।

এরপর ভারতীয় শিবিরে আঘাত হানেন জো রুট। রাহুলকে এলবিডাব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি। রিভিউ নিলেও বাঁচেননি এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটার। ৪৮ বলে ২২ রান করেন তিনি। এরপর দুর্দান্ত এক থ্রোতে রবীন্দ্র জাদেজাকে (২) রানআউট করেন ইংলিশ অধিনায়ক স্টোকস। আর জ্যাক লিচের বলে স্লিপে সহজ ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন শ্রেয়াস আইয়ারও (১৩)। ফলে লেজ বেরিয়ে যায় দলটির।

এরপর রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে নিয়ে দলের হাল ধরেন স্রিকার ভরত। ৫৭ রানের জুটি গড়ে ভারতকে স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন এ দুই ব্যাটার। তবে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগে এ দুই সেট ব্যাটারকে ফেরান হার্টলি। ভরতকে বোল্ড করে দিয়ে জুটি ভাঙেন। এরপর অশ্বিনকে ফেলেন স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে। বাঁকের মুখে লাইন মিস করেন বোল্ড হন ভরত। আর বল কিছুরা নিচু হলে এগিয়ে গিয়ে ব্যাটে বলে সংযোগ করতে পারেননি অশ্বিন। দুই ব্যাটারই করেন ২৮ রান।

এরপর শেষ উইকেট জুটিতে ফের প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন জাসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ সিরাজ। ২৫ রানের জুটিও গড়েছিলেন। কিন্তু সিরাজকে স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলে ইংল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন হার্টলি। ৬২ রান খরচ করে একাই ৭টি উইকেট তুলে নেন এই স্পিনার।

সকালে আগের দিনের ৬ উইকেটে ৩১৬ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে ইংল্যান্ড। এদিন সবার দৃষ্টি ছিল পোপের উপরই। আগের দিন ১৪৮ রান তোলা এই ব্যাটার এদিনও দারুণ ব্যাটিং করে ডাবল সেঞ্চুরির বড় সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন। তবে ৪ রান দূরে থাকতে বড় ঝুঁকি নেন। বুমরাহর অফকাটারে রিভার্স স্কুপ করতে যান পোপ। লাইন মিস করে বোল্ড হয়ে গেলে আক্ষেপ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাকে।

ডাবল সেঞ্চুরি না পেলেও দলকে লড়াই করার মতো লিড এনে দেওয়ার সন্তুষ্টি নিয়েই মাঠ ছাড়েন পোপ। ১৯৬ রানের এই ইনিংস খেলতে বল মোকাবেলা করেছেন ২৭৮টি। ২১টি চারের সাহায্যে সাজান নিজের ইনিংস। তার নৈপুণ্যেই এদিন শেষ চার উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে আরও ১০৪ রান যোগ করে ইংল্যান্ড। অবশ্য তাকে দারুণ সহায়তা করেন রেহান আহমেদ ও হার্টলি।

রেহানকে নিয়ে দিন ব্যাটিংয়ে নামেন পোপ। ১৬ রানে অপরাজিত থাকা রেহান আরও ১২ রান যোগ করে বুমরাহর শিকারে পরিণত হন। ভাঙে ৬৪ রানের জুটি। এরপর পোপের সঙ্গে আরও দারুণ একটি জুটি গড়ে তোলেন হার্টলি। অষ্টম উইকেটে ৮০ রান যোগ করেন এ দুই ব্যাটার। তাতেই লড়াইয়ে মতো পর্যাপ্ত লিড পেয়ে যায় দলটি।

শেষ পর্যন্ত ৫২ বলে ৩৪ রানের ইনিংস খেলে অশ্বিনের শিকার হন হার্টলি। ডিফেন্স করার চেষ্টা করলেও বল কিছুটা নিচু হওয়ায় বোল্ড যান তিনি। আর মার্ক উডকে খালি হাতেই ফেরান জাদেজা। এরপর স্ট্রাইক পেলে দ্রুত ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করতে গেলে আউট হয়ে যান পোপও। ইংল্যান্ড পায় ২৩০ রানের লিড।

ভারতের পক্ষে ৪১ রানের খরচায় ৪টি উইকেট পান বুমরাহ। অশ্বিন ৩টি ও জাদেজা ২টি উইকেট নেন।

Comments

The Daily Star  | English

Bheem finds business in dried fish

Instead of trying his luck in other profession, Bheem Kumar turned to dried fish production and quickly changed his fortune.

49m ago