ক্রিকেট

পাকিস্তান সফরের নিউজিল্যান্ড দলের শক্তি আরও কমে গেল

চোটের কারণে দুই দলের আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন অ্যাডাম মিল্‌ন ও ফিন অ্যালেন।
ছবি: এক্স

আইপিএল, বিশ্রাম ও ছুটি মিলিয়ে মূল দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটারকে পাকিস্তান সফরে পাচ্ছে না নিউজিল্যান্ড। সেকারণে ব্ল্যাকক্যাপসদের ঘোষিত দ্বিতীয় সারির স্কোয়াডের শক্তিও এবার কমে গেল। চোটের কারণে দুই দলের আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন অ্যাডাম মিল্‌ন ও ফিন অ্যালেন।

শুক্রবার পেসার মিল্‌ন ও ওপেনার অ্যালেনের চোটের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিউজিল্যান্ডের কোচ গ্যারি স্টিড। অনুশীলনকালে মিল্‌ন গোড়ালিতে ও অ্যালেন পিঠে চোট পেয়েছেন। তাদের পরিবর্তে ডাকা হয়েছে টম ব্লান্ডেল ও জ্যাক ফোউকসকে।

টেস্ট দলের নিয়মিত উইকেটরক্ষক-ব্যাটার ব্লান্ডেল সবশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে। তিনি দলে ফিরেছেন দুই বছর পর। এই সংস্করণে সাত ম্যাচে ১৪.৭৫ গড়ে ও ৭৮.৬৬ স্ট্রাইক রেটে তার রান স্রেফ ৫৯। তরুণ পেস বোলিং অলরাউন্ডার ফোউকস জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন প্রথমবারের মতো। ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে ১৯ ম্যাচে ১২৮.০৪ স্ট্রাইক রেটে ১০৫ রানের সঙ্গে ৬.৯৪ ইকোনমিতে তার শিকার ২৬ উইকেট।

নিউজিল্যান্ডের আনকোরা স্কোয়াডের ভরসার জায়গা হতে পারতেন মিল্‌ন ও অ্যালেন। কারণ তাদের অভিজ্ঞতার ঝুলি বেশ সমৃদ্ধ। তাই যথাক্রমে ৫৩ ও ৪৩ টি-টোয়েন্টি খেলা মিল্‌ন ও অ্যালেনের ছিটকে যাওয়াকে দুর্ভাগ্যজনক বলেছেন স্টিড। পাশাপাশি ব্লান্ডেল ও ফোউকসের জন্য নিজদের মেলে ধরার সুযোগ দেখছেন কিউইদের কোচ।

চলমান আইপিএলে খেলছেন নিউজিল্যান্ডের নয় ক্রিকেটার। তারা হলেন কেইন উইলিয়ামসন, ট্রেন্ট বোল্ট, ডেভন কনওয়ে, লোকি ফার্গুসন, ম্যাট হেনরি, ড্যারিল মিচেল, গ্লেন ফিলিপস, রাচিন রবীন্দ্র ও মিচেল স্যান্টনার। কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে ব্যস্ত আছেন উইল ইয়ং। দ্বিতীয় সন্তানের আগমন উপলক্ষে ছুটি নিয়েছেন টম ল্যাথাম। বিশ্রামে আছেন টিম সাউদি। এই ১২ জনকে পাকিস্তানের বিপক্ষে পাওয়া যাচ্ছে না।

এমন পরিস্থিতিতে মিল্ন ও অ্যালেনকে হারানো নিউজিল্যান্ডের জন্য অবশ্যই বড় ধাক্কা। মূল তারকাদের অনুপস্থিতিতে এই সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দেবেন অলরাউন্ডার মাইকেল ব্রেসওয়েল। চোট কাটিয়ে লম্বা সময় পর ফিরেছেন তিনি। জাতীয় দলের জার্সিতে শেষবার খেলেছিলেন গত মার্চে।

আগামী ১৮ এপ্রিল রাওয়ালপিন্ডিতে শুরু হবে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ডের পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ২০ ও ২১ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় পরের দুটি খেলাও একই ভেন্যুতে। আর ২৫ ও ২৭ এপ্রিল শেষ দুই ম্যাচ হবে লাহোরে।

Comments