চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সহজ হলে এতদিনে জিতে ফেলতাম: এমবাপে

অধরা উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের আরেকটি অভিযানে শুভ সূচনা করেছে পিএসজি।
ছবি: টুইটার

অধরা উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের আরেকটি অভিযানে শুভ সূচনা করেছে পিএসজি। যদিও ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে জুভেন্তাসের তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে হয় তাদের। তবে একে স্বাভাবিকভাবে দেখছেন ক্লাবটির তারকা ফরাসি স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপে। কারণ, বাকি সবার মতো তারও জানা আছে যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জেতা মোটেও সহজ নয়।

মঙ্গলবার রাতে ঘরের মাঠ পার্ক দে প্রিন্সেসে 'এইচ' গ্রুপের ম্যাচে ইতালিয়ান সিরি আর পরাশক্তি জুভদের ২-১ গোলে হারায় পিএসজি। ফরাসি লিগ ওয়ানের শিরোপাধারীদের পক্ষে প্রথমার্ধের ২২ মিনিটের মধ্যে জোড়া গোল করেন এমবাপে। বিরতির পর সফরকারীদের হয়ে ব্যবধান কমান ওয়েস্টন ম্যাককিনি। বাকি সময় লিড ধরে রেখে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে ক্রিস্তোফ গালতিয়ের শিষ্যরা।

প্রথমার্ধে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি ধরে রাখলেও দ্বিতীয়ার্ধে সেই ধারা বজায় রাখতে পারেনি পিএসজি। সেসময় দারুণ লড়াই উপহার দেয় জুভেন্তাস। পরিসংখ্যানে ফুটে ওঠে সেই চিত্র। গোলমুখে ১৩টি শট নিয়ে জুভরা লক্ষ্যে রাখে চারটি। অন্যদিকে, বল দখলে বেশ এগিয়ে থাকা প্যারিসিয়ানদের ১৫টি শটের ছয়টি ছিল লক্ষ্যে।

ম্যাচের পর স্বদেশি গণমাধ্যম আরএমসি স্পোর্টের কাছে দুই অর্ধের পারফরম্যান্সের ভিন্নতার কথা স্বীকার করে নেন এমবাপে, 'প্রথমার্ধ ও দ্বিতীয়ার্ধের খেলায় অল্প কিছু পার্থক্য ছিল। আমরা জানি যে আমাদের কিছু কমতি আছে।'

দ্বিতীয়ার্ধে হ্যাটট্রিক পূরণের সুযোগ এসেছিল পিএসজির সামনে। কিন্তু বেশ কয়েকটি সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি ২৩ বছর বয়সী এমবাপে। তবে গোল মিস করা নিয়ে মাথা ঘামাতে চাননি তিনি, 'স্কোরলাইন ৩-০ করতে আমার ব্যর্থতা? আমি আমার জীবনে অনেক গোল মিস করেছি। আমি অনেক গোল করব, অনেক গোল মিস করব। এগুলো ম্যাচের অংশ। গোল মিস করা নয় বরং ব্যর্থতা নিয়ে ভাবতে ভাবতে আপনি আপনার দলকে বিপাকে ফেলেন।'

গত প্রায় এক দশক ধরে অন্যতম ফেভারিটের তকমা গায়ে থাকলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা হয়নি পিএসজির। ২০১৯-২০ মৌসুমে ফাইনালে উঠলেও বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হার মানে তারা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কাঠিন্য নিয়ে তার ভাষ্য, 'আমাদের আরও কাজ করার বাকি আছে, এটা স্বাভাবিক। এটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। এটা যদি সহজ কিছু হতো, তাহলে এতদিনে আমরা এটা জিতে ফেলতাম।'

Comments

The Daily Star  | English

Now, battery-run rickshaws to ply on Dhaka roads

Road, Transport and Bridges Minister Obaidul Quader today said the battery-run rickshaws and easy bikes will ply on the Dhaka city roads

18m ago