'কোনো রিলিজ ক্লজ নেই হালান্ডের'

রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার জন্য ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে চুক্তিপত্রে একটি বিশেষ ধারা রেখেছেন আর্লিং হালান্ড। সম্প্রতি স্পেনের গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংবাদে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে ফুটবল মহলে। তবে এ গুঞ্জন সত্য নয় বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা। চুক্তিপত্রে হালান্ডের কোনো রিলিজ ক্লজই রাখা হয়নি বলে জানান এ স্প্যানিশ কোচ।

রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার জন্য ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে চুক্তিপত্রে একটি বিশেষ ধারা রেখেছেন আর্লিং হালান্ড। সম্প্রতি স্পেনের গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংবাদে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে ফুটবল মহলে। তবে এ গুঞ্জন সত্য নয় বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা। চুক্তিপত্রে হালান্ডের কোনো রিলিজ ক্লজই রাখা হয়নি বলে জানান এ স্প্যানিশ কোচ।

সিটিতে যোগ দেওয়ার আগে রিয়ালে যাওয়ার গুঞ্জন ছিল হালান্ডের। তার অতিরিক্ত বেতন-ভাতা দিতে রাজী হয়নি বলে রিয়ালে যোগ দেওয়া হয়নি তার। এমন সংবাদই তখন প্রকাশিত হয় স্প্যানিশ গণমাধ্যমে। স্পেনের বর্তমান সংবাদ অনুযায়ী, হালান্ড এখনও রিয়ালে যোগ দিতে চান। এরজন্য চুক্তিপত্রে রিয়ালের জন্য স্বাভাবিক রিলিজ ক্লজের অর্ধেক মূল্যেই তাকে ছেড়ে দেওয়ার একটি ধারা রেখেছেন।

তবে কোপেনহেগেনের বিপক্ষে ৫-০ গোলে জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিবেদনের সত্যতা নাকচ করে দিয়ে গার্দিওলা বলেন, 'এটা সত্যি নয়। রিয়াল মাদ্রিদের জন্য তো বটেই, কোনো ক্লাবের জন্য হালান্ডের কোনো রিলিজ ক্লজ নেই। ওটা সত্যি নয়, এটাই আমি বলতে পারি। গুজব, লোকজনের কথা, আমরা এটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। আমরা যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি তা নিয়ে সর্বদা আমাদের চিন্তা করতে হবে।'

ম্যানচেস্টার সিটিতে হালান্ড যেন সুখে থাকে তার জন্য সব ধরণের চেষ্টাই চালাবেন গার্দিওলা, 'ও সত্যিই ভালো মানিয়ে নিয়েছে এবং আমি অনুভব করেছি যে ও এখানে অবিশ্বাস্যরকমের খুশি। আমরা চেষ্টা করব, যারা এখানে থাকতে চায় তাদের খুশি করার জন্য। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।'

ভবিষ্যতে যে কোনো কিছুই ঘটতে পারে বলে জানান এ কোচ। তবে বর্তমানে ও সুখেই আছে বলে জানান তিনি, 'শেষ পর্যন্ত ভবিষ্যতে কী ঘটতে পারে, তা কেউ জানে না। যা গুরুত্বপূর্ণ তা হল ও এখানে নিখুঁতভাবে বসতি স্থাপন করেছে, ও খুশি এবং অবিশ্বাস্যভাবে ও সকলের কাছে প্রিয়। এটা হল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

চলতি মৌসুমে দল বদল করে নতুন ক্লাবে যোগ দিলেই দুর্দান্ত ছন্দে আছেন হালান্ড। যেখানে নতুন ক্লাবে মানিয়ে নিতে অনেক তারকা খেলোয়াড়দের হিমশিম খেতে হয় সেখানে প্রথম ১২ ম্যাচেই ১৯ গোল। অবিশ্বাস্য এক পরিসংখ্যান এ তরুণের। আগের দিন এফসি কোপেনহেগেনের বিপক্ষে প্রথম ৪৫ মিনিট খেলেছেন হালান্ড। তাতেই পেয়েছেন জোড়া গোল।

Comments

The Daily Star  | English

Dozens injured in midnight mayhem at JU

Police fire tear gas, pellets at quota reform protesters after BCL attack on sit-in; journalists, teacher among ‘critically injured’

3h ago