১ শতাংশ সুযোগ থাকলেও চেষ্টার করার প্রত্যয় ক্লপের

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে নিজেদের মাঠে তিন গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে প্রতিপক্ষের মাঠে সমীকরণ মিলিয়ে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার রেকর্ড নেই।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বরাবরই ভয়ঙ্কর দল রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের বিপক্ষে নিজেদের ঘরের মাঠেই পাত্তা পায়নি লিভারপুল। সেখানে রিয়ালের মাঠ থেকে সব অঙ্ক মিলিয়ে জয় ছিনিয়ে বেজায় কঠিন তাদের জন্য। সম্ভাবনা এক অর্থে খুবই কম। তবে ন্যূনতম সম্ভাবনা থাকলেও সেই চেষ্টাটা করে দেখতে চান অলরেডদের কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ।

অ্যানফিল্ডে গত ২২ ফেব্রুয়ারি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে দুই গোলের ব্যবধানে এগিয়ে থেকেও ২-৫ ব্যবধানে হেরে যায় লিভারপুল। দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে আজ রাতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে মানবে দলটি। যেখানে জিততে তো হবেই সঙ্গে ব্যবধান রাখতে হবে চার গোলের। তিন গোলের ব্যবধানে জিতলে খেলতে পারবে টাই-ব্রেকার।

প্রতিপক্ষের মাঠে এমন সমীকরণ মেলানো এক অর্থে অসম্ভবই বটে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে নিজেদের মাঠে তিন গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে প্রতিপক্ষের মাঠে সমীকরণ মিলিয়ে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার রেকর্ড নেই। সেখানে নতুন ইতিহাসই গড়তে হবে রেডদের।

তবে এক শতাংশ সুযোগ থাকলেও সেই চেষ্টাটা করার প্রত্যয় ঝরে লিভারপুল কোচের কণ্ঠে, 'তিন সপ্তাহ আগেই আমি বলেছিলাম, মাদ্রিদ তাদের ফলাফলের কারণে পরের রাউন্ডে পৌঁছে গেছে। এখন তিন সপ্তাহ পর আমরা এখানে এসেছি এবং আমরা জানি এখানে একটি ম্যাচ রয়েছে। যদি মাত্র এক শতাংশ সুযোগ থাকে, আমি সেই চেষ্টা করে দেখতে চাই।'

প্রতিপক্ষের শক্তিমত্তা ও ইতিহাস জানার পরও চেষ্টায় ত্রুটি রাখতে চান না ক্লপ, 'আমরা এখানে অত্যন্ত শক্তিশালী একটি প্রতিপক্ষের সঙ্গে খেলতে এবং ম্যাচটি জেতার চেষ্টা করতে এসেছি। এটি ঠিক যতটা কঠিন, এটা মনে হচ্ছে সম্ভব নয়, তবে সম্ভব। এর জন্যই, আমরা এখানে এসেছি, আমরা দেখব এটা আমাদের কোথায় নিয়ে যায়।'

প্রতিপক্ষের মাঠে তিন গোলের ব্যবধান ঘোচানোর রেকর্ড না থাকলেও দুই গোলের রয়েছে। ২০১৮/১৯ মৌসুমে ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হেরে পিএসজির মাঠ থেকে ৩-১ গোলে জিতে পরবর্তী রাউন্ডে উঠেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সেই মৌসুমেই ঘরের মাঠে রিয়ালের কাছে ২-১ গোলে হেরে বার্নাব্যু থেকে ৪-১ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছিল আয়াক্স।

Comments

The Daily Star  | English

Our civil society needs to do more to challenge power structures

Over the last year, human rights defenders, demonstrators, and dissenters have been met with harassment, physical aggression, detainment, and maltreatment by the authorities.

7h ago