সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ

হেরে রেফারির উপর ক্ষোভ, পারফরম্যান্সে গর্বিত জামালরা

শনিবার বেঙ্গালুরুতে সাফের সেমিতে শক্তিশালী অতিথি দল কুয়েতের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ১৯৮২ বিশ্বকাপ খেলা কুয়েত শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলে জিতলেও নির্ধারিত সময়ে সমতা ধরে রাখতে পেরেছিল লাল সবুজের প্রতিনিধিরা
jamal bhuyan

অতিরিক্ত সময়ের গোলে হৃদয় ভাঙা হার যেন মেনে নিতে পারছিল না বাংলাদেশ ফুটবল দল। ম্যাচ শেষেই দেখা গেল উত্তেজনা। দু'দলের খেলোয়াড়রা বিবাদে জড়ালেন, বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের অনেক ক্ষোভ দেখা গেল রেফারি জন ক্রিস্টালের দিকে। গ্যালারির ভারতীয় সমর্থকরাও জামাল ভূঁইয়াদের পক্ষ নিলেন। মাঠ ছেড়ে যাওয়া বাংলাদেশ দলকে তারা দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানালেন। কুয়েতের কাছে হেরে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিলেও জামাল ভূঁইয়ারা তাই নিজেদের পারফরম্যান্সে গর্বিত, তবে সমালোচনা করলেন রেফারির।

শনিবার বেঙ্গালুরুতে সাফের সেমিতে শক্তিশালী অতিথি দল কুয়েতের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ১৯৮২ বিশ্বকাপ খেলা কুয়েত শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলে জিতলেও নির্ধারিত সময়ে সমতা ধরে রাখতে পেরেছিল লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। গোল হয়েছে অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধ্বের শেষ দিকে।

অথচ দারুণ সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে নির্ধারিত সময়ে জিততে পারত বাংলাদেশই। শেখ মোরসালিন, রাকিব হোসেনরা আশা জাগিয়েও পুড়েছেন আক্ষেপে। ম্যাচ শেষে মিক্সড জোনে প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের ফুটবলাররা।  

জামাল ভূঁইয়া

'আমাদের মনে হয়েছে ১২০ মিনিট রেফারি আমাদের বিপক্ষে ছিল, একারণে আমরা একটু রাগ করেছিলাম। কুয়েতের প্লেয়ারটা অনেক ভুল করেছে, কিন্তু রেফারি ফাউল দেয়নি। এ কারণে আমাদের মনে হয়েছে রেফারি আমাদের বিপক্ষে ছিল।

ভারতীয় সমর্থকদের আমাদের অভিনন্দন জানানো দারুণ ব্যাপার। আমি ছেলেদের নিয়ে গর্বিত। কেননা, আমরা ভালো সুযোগ পেয়েছি, কিন্তু গোল পায়নি। সব মিরিয়ে আমরা ভালো পারফর্ম করেছি, তাই (হেরেছি) বলে হতাশ।'

মোহাম্মদ ইব্রাহিম

'অনেক খারাপ লাগছে। আমরা শেষ পর্যন্ত লড়াই করেছি। অনেক ভালো খেলেছি। জয়ের জন্য মাঠে নেমেছিলাম, সবাই জান-প্রাণ দিয়ে চেষ্টা করেছে, ব্যাডলাক ছাড়া আর কিছু বলার নেই। রেফারি আমাদের সঙ্গে অনেক ইয়ে করেছে, অনেক ফাউল করেছে ওরা, কিন্তু রেফারি ফাউল দেইনি।'

শেখ মোরসালিন

'আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আমরা অনেকটা সময় ভালো খেলেছিলাম, সুযোগ তৈরি করেছিলাম, কিন্তু আল্লাহ আমাদের সহায় হয়নি, চেষ্টা করব সামনে ভালো কিছু করার।'

তপু বর্মণ

'কিছুই বলার নেই, রেফারি আমাদের শেষ করে দিয়েছে। নাথিং টু সে। নাথিং টু সে।'

বিশ্বনাথ ঘোষ

'সবসময় তো আমরা সান্ত্বনা নিয়েই দেশে ফিরি। এবার আমাদের আশা ছিল আরও বেশি। মাঠে নামার আগে, নামার পরে, এমনকি টিম ব্রিফিংয়ে আমি বারবার বলেছি, আমরা যদি পরস্পরের প্রতি বিশ্বাস ও আস্থা রাখি, তাহলে আমরা কুয়েত বাধা পেরুতে পারব। কিন্তু দিনটি আসলে আমাদের ছিল না।'

Comments

The Daily Star  | English

Pahela Baishakh being celebrated

Pahela Baishakh, the first day of Bengali New Year-1431, is being celebrated across the country today with festivity, upholding the rich cultural values and rituals of the Bangalees

1h ago