ফুটবল

হালান্ডের রেকর্ডের ম্যাচে লিভারপুলের সঙ্গে ম্যান সিটির ড্র

টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ড্র করলেও প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে ম্যান সিটি।
ছবি: এএফপি

রেকর্ডের সঙ্গে তীব্র সখ্যতা গড়ে তোলা আর্লিং হালান্ড আরও একটি কীর্তি নিজের করে নিলেন। ম্যানচেস্টার সিটির স্ট্রাইকার হয়ে গেলেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে দ্রুততম ৫০ গোলের মালিক। তার লক্ষ্যভেদে জয়ের দিকেই এগোচ্ছিল আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। তবে ট্রেন্ট আলেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের গোলে তাদের আশা মাড়িয়ে সমতায় ফিরল লিভারপুল।

শনিবার রাতে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে দুই পরাশক্তির মধ্যকার জমজমাট লড়াই শেষ হয়েছে ১-১ সমতায়। নিজেদের মাঠে প্রথমার্ধের ২৩তম মিনিটে নরওয়েজিয়ান তারকা হালান্ডের কল্যাণে এগিয়ে যায় সিটি। সেই লিড পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা ধরে রাখে দ্বিতীয়ার্ধের শেষদিক পর্যন্ত। এরপর ৮০তম মিনিটে গোল শোধ করে লিভারপুলকে উল্লাসে মাতান ইংলিশ ডিফেন্ডার আলেকজ্যান্ডার-আর্নল্ড। বাকি সময়ে আর কেউ জাল কাঁপাতে না পারলে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ে দুই ক্লাব।

বরাবরের মতো বল দখলে এগিয়ে থাকা স্বাগতিক সিটিজেনরা গোলমুখে ১৬টি শট নিয়ে পাঁচটি রাখে লক্ষ্যে। অন্যদিকে, অলরেডদের আটটি শটের তিনটি ছিল লক্ষ্যে। দুই দলের দুই ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষককেই দারুণ পরীক্ষা দিতে হয়। ম্যান সিটির এদারসন দুটি ও লিভারপুলের আলিসন চারটি সেভ করেন।

প্রিমিয়ার লিগে মাত্র ৪৮ ম্যাচেই ৫০ গোল হয়ে গেল ২৩ বছর বয়সী হালান্ডের। এত কম ম্যাচে এই প্রতিযোগিতায় গোলের হাফসেঞ্চুরি করতে পারেননি আর কেউ। এই লিগের ইতিহাসে দ্রুততম ৫০ গোলের আগের রেকর্ড ছিল অ্যান্ড্রু কোলের দখলে। তিনি গোলের ফিফটি করেছিলেন ৬৫ ম্যাচে। ১৭ ম্যাচ কম খেলেও কোলের কীর্তি ছাপিয়ে গেলেন হালান্ড। এই তালিকার শীর্ষ পাঁচের বাকি স্থানগুলোতে আছেন যথাক্রমে অ্যালান শিয়েরার (৬৬ ম্যাচ), রুদ ফন নিস্তেলরুই (৬৮ ম্যাচ) এবং যৌথভাবে ফার্নান্দো তোরেস ও মোহামেদ সালাহ (৭২ ম্যাচ)।

লিগের গত মৌসুমে ৩৫ ম্যাচে ৩৬ গোল নিয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার জিতেছিলেন হালান্ড। এই আসরে সেটাই ছিল তার অভিষেক মৌসুম। চলতি মৌসুমেও গোলদাতাদের তালিকায় সবার উপরে আছেন তিনি। ১৩ ম্যাচে তার নামের পাশে রয়েছে ১৪ গোল।

টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ড্র করলেও প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে ম্যান সিটি। ১৩ ম্যাচে তাদের অর্জন ২৯ পয়েন্ট। তাদের ঘাড়ের ওপর নিঃশ্বাস ফেলছে লিভারপুল। দুইয়ে থাকা ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যদের পয়েন্ট সমান ম্যাচে ২৮।

Comments