রিয়ালের কাছে হারের পর ক্ষোভে ফুঁসছে আলমেরিয়া

‘আমাদের কাছ থেকে ম্যাচটা চুরি করা হয়েছে’

দুই গোলের লিড নিয়েও নাটকীয়ভাবে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে গেছে আলমেরিয়া। ম্যাচটির রেফারিং ও ভিএআর নিয়ে অনুমিতভাবেই বইছে বিতর্কের ঝড়ো হাওয়া।
ছবি: এএফপি

ঘটনাবহুল লড়াইয়ে দুই গোলের লিড নিয়েও নাটকীয়ভাবে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে গেছে আলমেরিয়া। ম্যাচটির রেফারিং ও ভিএআর নিয়ে অনুমিতভাবেই বইছে বিতর্কের ঝড়ো হাওয়া। ক্ষোভে ফুঁসে ওঠা আলমেরিয়ার ফুটবলাররা কোনো রাখঢাক না করেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন রেফারির দিকে।

গতকাল রোববার রাতে রিয়ালের মাঠে ৩-২ গোলে পরাস্ত হয়েছে আলমেরিয়া। স্প্যানিশ লা লিগার এবারের মৌসুমের ২১তম ম্যাচে এসে জয়ের আশা জাগিয়েছিল তারা। কিন্তু প্রথমার্ধে লার্জি রামাজানি ও এদগার গনজালেজের গোলে পিছিয়ে পড়া রিয়াল দ্বিতীয়ার্ধে প্রত্যাবর্তনের আরেকটি দুর্দান্ত গল্প লেখে। বিরতির পর জুড বেলিংহ্যাম ও ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের গোলে সমতায় ফেরে তারা। এরপর যোগ করা সময়ের নবম মিনিটে স্বাগতিকদের পক্ষে জয়সূচক গোলটি করেন দানি কারভাহাল।

রিয়ালের শেষ হাসির আগে বেশ কিছু বিতর্কিত মুহূর্ত তৈরি হয়, সবই দ্বিতীয়ার্ধে। ম্যাচের ৫৭তম মিনিটে বেলিংহ্যাম দলের প্রথম গোলটি করেন ডি-বক্সে আলমেরিয়ার ডিফেন্ডার কাইকি ফার্নান্দেসের হাতে বল লাগায় পাওয়া পেনাল্টি থেকে। কিন্তু সফরকারীদের দাবি ছিল, ফার্নান্দেসকে এর আগেই ফাউল করেছিলেন রিয়ালের হোসেলু। চার মিনিট পর আলমেরিয়ার সার্জিও আরিবাস লক্ষ্যভেদ করলেও ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোল দেননি রেফারি ফ্রান্সিসকো হোসে হার্নান্দেজ। তার মতে, আক্রমণের শুরুতে বেলিংহ্যামকে ফাউল করেছিলেন দিয়োন লুপি।

সেখানেই শেষ নয়। ৬৭তম মিনিটে ভিনিসিয়ুসের গোলটি শুরুতে হ্যান্ডবলের কারণে দেননি রেফারি। পরে ভিএআরের সহায়তায় তিনি সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেললে তখনই তীব্র প্রতিবাদ করেন আলমেরিয়ার কোচ ও খেলোয়াড়রা। যোগ করা সময়ের সপ্তম মিনিটে লাল কার্ড দেখানো হয় আলমেরিয়ার কোচ গাইজকা গারিতানোকে। এর কিছুক্ষণ পরই কারভাহাল জাল খুঁজে নিয়ে হতাশায় পোড়ান প্রতিপক্ষকে।

ম্যাচের শেষ বাঁশি বাঁজার পর গণমাধ্যমের কাছে রেফারিং ও ভিএআর নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেন আলমেরিয়ার ফুটবলাররা। দলটির মিডফিল্ডার গনজালো মেলেরো বলেন, 'আমাদের কাছ থেকে ম্যাচটা চুরি করা হয়েছে, এমন অনুভূতি নিয়ে আমরা মাঠ ছেড়েছি। পেনাল্টি, হ্যান্ডবলের পর গোল, আকার-ইঙ্গিত, ফাউলের কারণে গোল বাতিল হওয়া সবকিছুই।'

তার দৃষ্টিতে, লা লিগার বর্তমান অবস্থা ভীষণ নাজুক, 'যদি আমরা বিশ্বের সেরা লিগ হতে চাই, যেটা নিয়ে অনেক কথা হয়ে থাকে... আমরা সেই অবস্থান থেকে আসলে আলোকবর্ষ দূরে আছি। এই কথা বলাটাও আমার জন্য কঠিন হচ্ছে এবং এটা আমাকে ভীষণ কষ্ট দিচ্ছে, কিন্তু এটা মেনে নেওয়ার কোনো উপায় নেই... তবে আজকের (রোববার) পরিস্থিতি সীমা ছাড়িয়ে গেছে। এটা সত্যিই ভীষণ ধাক্কার ব্যাপার। স্প্যানিশ ফুটবল এখন প্রিমিয়ার লিগ থেকে আলোকবর্ষ দূরে। এটাই বাস্তবতা।'

আলমেরিয়ার ডিফেন্ডার মার্ক পুবিল সরাসরিই রেফারিকে লক্ষ্য করে বলেন, 'আমাদের দল দারুণ একটি ম্যাচ খেলেছে। আমরা এগিয়ে গিয়েছিলাম এবং আমি বিশ্বাস করি, কেউ একজন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে আজ আমাদের জিততে দেবে না। আর ম্যাচটা সেভাবেই শেষ হয়েছে।'

Comments