এখনও বাংলাদেশকে অনেক কিছু দিতে পারেন জামাল, বিশ্বাস কোচের

২০২৩ সালের পর মাত্র দুই ম্যাচে পুরো ৯০ মিনিট খেলতে পেরেছেন জামাল

অনেক দিন থেকেই বাংলাদেশ দলের নেতৃত্বের আর্মব্যান্ড থাকে জামাল ভুঁইয়ার হাতে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে আগের ছন্দে নেই এই ফুটবলার। এমনকি ক্লাব পর্যায়েও নিয়মিত একাদশে জায়গা মিলছে না তার। তবে তারপরও বাংলাদেশ জাতীয় দলকে অনেক কিছু দেওয়ার রয়েছে বলে মনে করেন প্রধান কোচ হ্যাভিয়ার ক্যাবরেরা।

২০১৩ সালের আগস্টে বাংলাদেশ দলে অভিষেক হয় ডেনমার্কে জন্ম নেওয়া জামালের। তখন থেকেই বাংলাদেশ দলের নিয়মিত সদস্য তিনি। ২০২২ সাল পর্যন্ত প্রায় নিয়মিতই পুরো ম্যাচ খেলেছেন। তবে ২০২৩ সালের পর চিত্রটা বদলেছে। এ সময়ে ১৩ ম্যাচের মধ্যে মাত্র দুই ম্যাচে পুরোটা খেলতে পেরেছেন। দুই ম্যাচে বদল করা হয়েছে তাকে। এক ম্যাচে শুরু করেছেন বদলি হিসেবে।

এছাড়া প্রায় তিন মাস প্রতিযোগিতামূলক ফুটবলের বাইরে ছিলেন তিনি এবং তার ক্লাব সোল ডি মায়ো - আর্জেন্টিনার তৃতীয় স্তরের ক্লাবে বেঞ্চেই বসেছিলেন তিনি। তারপরও তাকে দলে রাখা নিয়ে কাবরেরা বলেন, 'সে (জামাল) অনুশীলনে ছিল এবং সোল ডি মায়োর হয়ে বন্ধুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলেছে। আমরা জানি সে ফিট। প্রতিযোগিতামূলক খেলার অভাব রয়েছে কিন্তু আর্জেন্টিনার লিগের পরিস্থিতির কারণে এটি হয়েছে।'

এখনও জামাল বাংলাদেশকে অনেক কিছু দিতে পারেন জানিয়ে এই স্প্যানিশ কোচ আরও বলেন, 'আমি নিশ্চিত যে জামাল এখনও অধিনায়ক হিসেবে দলের জন্য ডেলিভারি দিতে পারে। সে সবচেয়ে অভিজ্ঞ খেলোয়াড় এবং তালিকায় তার নাম রাখার ব্যাপারে আমাদের কোনো সন্দেহ নেই।'

পুরো ম্যাচে মাঠে না থাকলেও জামালই অধিনায়কত্বের আদর্শ প্রার্থী বলেও বিশ্বাস করেন এই কোচ, 'সে একজন দুর্দান্ত পেশাদার; সে খুব ভালো উদাহরণ। আমি আগেই বলেছিলাম যে স্কোয়াডে থাকা অনেক তরুণ খেলোয়াড় জামালকে অনুসরণ করার জন্য ভালো উদাহরণ হতে পারে।'

বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকায় আসেন জামাল। সোলে ডি মায়োর সঙ্গে চুক্তি ছিন্ন করে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দ্বিতীয় পর্ব থেকে তিনি আবাহনী লিমিটেডে যোগ দেবেন বলে আশা করছেন আবাহনীর ম্যানেজার নজরুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, আগামী ২১ ও ২৬ মার্চ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ম্যাচের আগে ২ মার্চ দুই সপ্তাহের প্রস্তুতি ক্যাম্পের জন্য সৌদি আরবে রওনা হবে বাংলাদেশ দল।

Comments

The Daily Star  | English

Our civil society needs to do more to challenge power structures

Over the last year, human rights defenders, demonstrators, and dissenters have been met with harassment, physical aggression, detainment, and maltreatment by the authorities.

8h ago