চতুর্থ দিনেও ব্যাটিং করতে চায় বাংলাদেশ

'আমরা সবসময় জয়ের আশা দেখি। ভারতকে হারাতে পারলে তো অবশ্যই ভালো লাগবে, শুধু আমার না, আপনাদেরও। তো আমরা চেষ্টা করবো। আমরা জেতার জন্যই খেলবো।' সংবাদ সম্মেলনে জয়ের প্রত্যয় দেখিয়ে জোরালো কণ্ঠেই বললেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। কিন্তু ঢাকা টেস্টে এখনও ৮০ রানে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ।

'আমরা সবসময় জয়ের আশা দেখি। ভারতকে হারাতে পারলে তো অবশ্যই ভালো লাগবে, শুধু আমার না, আপনাদেরও। তো আমরা চেষ্টা করবো। আমরা জেতার জন্যই খেলবো।' সংবাদ সম্মেলনে জয়ের প্রত্যয় দেখিয়ে জোরালো কণ্ঠেই বললেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। কিন্তু ঢাকা টেস্টে এখনও ৮০ রানে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ।

প্রথম ইনিংসে বেশ ভালো উইকেটে ব্যাটিং করেও প্রত্যাশা অনুযায়ী পুঁজি গড়তে পারেনি টাইগাররা। দলের সব ব্যাটারই উইকেটে সেট হয়েছিলেন। তবে এক মুমিনুল হক ছাড়া বাকি সবাই ছিলেন ব্যর্থ। এমনকি ত্রিশার্ধ্ব ইনিংসও খেলতে পারেননি কেউ। সেখানে দ্বিতীয় ইনিংসে আগামী দুই দিন ব্যাটিং করার ইচ্ছার কথা জানান তাইজুল।

তবে কাজটা বেশ কঠিন হলেও অসম্ভব কিছুই নয়। যদিও দ্বিতীয় দিনেই উইকেটে কিছুটা টার্ন দেখা গিয়েছে, তৃতীয় দিনে বাড়তে পারে আরও। তারপরও মিরপুরের চেনা মাঠে ঘুরে দাঁড়ানোর সামর্থ্য রয়েছে বাংলাদেশের। উইকেট ভালো থাকা অবস্থায় তাই সর্বোচ্চ সময়ে ব্যাটিং চালিয়ে যেতে চায় টাইগাররা।

দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তাইজুল বলেন, '(কতক্ষণ ব্যাটিং করা যায়) খেলার অবস্থা দেখেই বুঝা যাবে। আমরা যদি কালকে নাহ, পরশু দিনও ব্যাটিং করতে পারি তাহলে তো আরও ভালো। এই উইকেটটা এমন একটা অবস্থায় আছে, আমরা যত ব্যাটিং করবো ততই ভালো। আমরা যেনো পরের দিকে তাদের খেলতে দিতে পারি।'

টাইগার ব্যাটাররা তাদের ২৫০ রানের লিড এনে দিতে পারলে লড়াইটা জমিয়ে করতে পারবেন বলে মনে করেন এ বাঁহাতি, 'বাংলাদেশ যদি ২৫০ রানের লিড নিতে পারে, এটা আমি খারাপ বলব না, অবশ্যই ভালো বলব। কারণ ২৫০ রানের লিড নিতে গেলে আমাদের কালকে সারাদিন খেলতে হবে। চতুর্থ ও পঞ্চম দিন উইকেট কেমন হবে, এটা আসলে দেখার বিষয়। তো আমার কাছে মনে হয় এটা খারাপ হবে না।'

তবে পান্ত ও শ্রেয়াস যখন ব্যাটিং করছিলেন তখন মনে হয়েছিল বিশালই লিডই নিতে যাচ্ছে ভারত। ১৫৯ রানের জুটি গড়েন এ দুই ব্যাটার। তবে এ জুটি ভাঙতে পারতো শুরুতেই। একের পর এক সুযোগ হাতছাড়া করেন ফিল্ডাররা। যদিও শেষ বিকেলে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় টাইগাররা। ৬১ রানের ব্যবধানে শেষ ছয়টি উইকেট তুলে ম্যাচ ফেরে বাংলাদেশ।

তবে শ্রেয়াস-পান্তের দেওয়া সুযোগগুলো যদি শুরুতেই নেওয়া যেত সেক্ষেত্রে উল্টো বাংলাদেশও লিড নিতে পারতো বলে মনে করেন তাইজুল, 'দুই-তিনটা সুযোগ আসছিলো। আমরা যদি ওই দুই-তিনটা সুযোগ নিতে পারতাম তাহলে কিন্তু আমাদের রানের আগে, তাদের অলআউট করা সম্ভব ছিলো। তো সুযোগ নেয়াটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।'

এমনকি সে সময় কিছু কম রান দিলেও ম্যাচে অনেকটা এগিয়ে থাকতেন বলে মনে করেন এ স্পিনার, 'মাঝের সেশনটা আসলে একটু আমাদের ব্যয়বহুল হয়ে গেছে। আমরা যদি ওই সময়টা আরও একটু কম রান দিয়ে রাখতে পারতাম, উইকেট যদি নাও আসত, একটু কম রান দিলে আরও ভালো অবস্থায় থাকতে পারতাম।'

Comments

The Daily Star  | English

Change Maker: A carpenter’s literary paradise

Right in the heart of Jhalakathi lies a library stocked with over 8,000 books of various genres -- history, culture, poetry, and more.

3h ago