বিপিএল ২০২৩

অধিনায়কত্ব নিয়ে দলের ফরমুলার কথা জেনে অবাক ইবাদত

বিপিএল আয়োজনে অগোছালো অবস্থা নিয়ে কদিন আগে সমালোচনা করেন সাকিব। তার দল বরিশালেও দেখা যায় একই অবস্থা। ম্যাচের দিন টিম মিটিংয়ে চূড়ান্ত করা হয় প্রথম ম্যাচের অধিনায়ক।
ebadot hossain

গত বছর সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে খেলেছিল ফরচুন বরিশাল। এবারও দল সাজানো থেকে সব কিছুতে শুরু থেকেই ছিলেন সাকিব। ঘোষণা না দিলেও তিনিই অধিনায়ক এমনটা ধরে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দলটির প্রথম ম্যাচে দেখা যায় ভিন্ন চিত্র, মেহেদী হাসান মিরাজকে দেওয়া হয় দায়িত্ব। এরপর বিস্ময়কর এক ঘোষণাও দিয়ে রেখেছে তারা। বিপিএলে এবার তারা নাকি 'ম্যাচ বাই ম্যাচ' অধিনায়ক ঠিক করবে! যে কথা জেনে সংবাদ সম্মেলনে চমকে গেলেন দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা পেসার ইবাদত হোসেন।

বিপিএল আয়োজনে অগোছালো অবস্থা নিয়ে কদিন আগে সমালোচনা করেন সাকিব। তার দল বরিশালেও দেখা যায় একই অবস্থা। ম্যাচের দিন টিম মিটিংয়ে চূড়ান্ত করা হয় প্রথম ম্যাচের অধিনায়ক। সিলেট স্টাইকার্সের কাছে ৬ উইকেটে ম্যাচ হেরে আসার পর ইবাদত জানান খেলার আগে দলের মিটিংয়ে তারা জানতে পারেন মিরাজের নেতৃত্ব দেওয়ার কথা।

টুর্নামেন্টে এবার যেহেতু দলের ফরমুলা ম্যাচ বাই ম্যাচ অধিনায়ক। সেক্ষেত্রে টেকনিক্যালি অধিনায়ক হওয়ার সুযোগ আছে ইবাদতেরও। এই ব্যাপারে প্রশ্ন শুরুতে বুঝতেই পারেননি তিনি। তাদের দল থেকে বলা সিদ্ধান্তের কথা জানানো হলে চমকে যান এই পেসার,  'ম্যাচ বাই ম্যাচ ক্যাপ্টেন্সি এটা কে বলল? দল থেকে ঘোষণা করা হয়েছে? তাই নাকি!'

ইবাদতের ভড়কে যাওয়ার পরিস্থিতি সামাল দেন দলটির মিডিয়া ম্যানেজার। সামলে নিয়ে এই পেসার তখন বলেন, 'এটা ম্যানেজমেন্ট যদি করে আমি তো জানার কথা না। আমি তো খেলোয়াড়।'

মিরাজ অধিনায়কত্ব করলেও মাঠে সব সিদ্ধান্ত যে তিনি নিয়েছেন এমনটা নয়। ইবাদতই জানালেন বোলিং পরিবর্তনে সিদ্ধান্ত এসেছে সাকিবের কাছ থেকেও,  'এখানে সমন্বয় ছিল। মিরাজ এবং সাকিব ভাই দুজনেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমাদের দলে বোলার অনেক, এটা খুবই ভাল দিক আমাদের জন্য। দুজন মিলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।'

শনিবার রাতে ঘন কুয়াশায় হয়েছে রান বন্যার ম্যাচ। সাকিবের আগ্রাসী ফিফটিতে বরিশাল ১৯৪ রানের পুঁজি নিয়েও ম্যাচ জিততে পারেনি। তৌহিদ হৃদয়, নাজমুল হোসেন শান্তদের ঝলক ম্যাচ জিতেছে মাশরাফি মর্তুজার সিলেট স্টাইকার্স।

Comments

The Daily Star  | English

2 MRT lines may miss deadline

The metro rail authorities are likely to miss the deadline for completing two of the six planned metro lines in Dhaka by 2030 as they have not yet started carrying out feasibility studies for the two lines.

2h ago