রুশোর বিস্ফোরক সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা

বৃহস্পতিবার সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আগে ব্যাটিং নিয়ে ৫ উইকেটে ২০৫ রান করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ৫৬ বলে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১০৯ রান করেন রুশো। ৩৮ বলে ৬৩ রান করেছেন ডি কক।
Rilee Rossouw

প্রথম ওভারেই উইকেট পেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু এরপর আরেকটি উইকেট পেতে অপেক্ষা করতে হয়েছে ১৫তম ওভার পর্যন্ত। এই সময়ে রাইলি রুশো আর কুইন্টেন ডি ককের তাণ্ডবে ৮৪ বলে যোগ হয়েছে ১৬৮ রান। পরে ৫২ বলে সেঞ্চুরির করা রুশোর ব্যাটে দুইশো ছাড়িয়ে থেমেছে তারা।

বৃহস্পতিবার সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আগে ব্যাটিং নিয়ে ৫ উইকেটে ২০৫ রান করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ৫৬ বলে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১০৯ রান করেন রুশো। ৩৮ বলে ৬৩ রান করেছেন ডি কক।

মেঘলা আকাশের নিচে টস হেরে বল করতে গিয়ে শুরুটা ছিল দারুণ। তাসকিন আহমেদ প্রথম ওভারেই তুলে নিয়েছিলেন টেম্বা বাভুমাকে। এরপরের সময়টা একদম বিপরীত। ডি কক আর রুশো মিলে বাকিটা সময় যেন পিষ্ট করতে থাকেন বাংলাদেশের বোলিং।

Quinton de Kock

প্রথম ওভারে মাত্র ২ রান দেয়া তাসকিন তার পরের ওভারে দিয়ে দেন ২১ রান। টানা দুই নো বল করার পর তাল হারিয়ে হজম করেন ছক্কা-চার। পাওয়ার প্লের মধ্যে মেহেদী হাসান মিরাজকে ব্যবহার করে লাভ করতে পারেনি বাংলাদেশ। এই অফ স্পিনারকে অনায়াসে উড়ান ডি কক, রুশো। পাওয়ার প্লের মধ্যে করা মিরাজের ২ ওভার থেকে আসে ২৪ রান। আগের ম্যাচে দারুণ বল করা হাসান মাহমুদ তার প্রথম ওভারে দেন ১১ রান।

পাওয়ার প্লের শেষ ওভার করতে আসেন মোস্তাফিজুর রহমান। ওই ওভারে নামে বৃষ্টি। খানিক বন্ধ থাকার পর ফের শুরু হয় খেলা। ৬ ওভারে স্কোর বোর্ডে ১ উইকেটে ৬৩ আনে প্রোটিয়ারা।

পাওয়ার প্লের পরও চতুর ক্রিকেটে রানের চাকা সচল রাখে তারা। মাঝের ওভারের মোসাদ্দেক হোসেন আর মিরাজদের স্পিন তাদের করতে পারেনি কাবু। ক্রিজে দুই বাঁহাতি থাকায় অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বল করতে আসেন ১০ ওভারের পর। এসেই দুই ছক্কা, নো বল, চার মিলিয়ে দিয়ে দেন ২১ রান।

Rilee Rossouw

ওই ওভারের শেষ বলের সময় নিজের পজিশন চেঞ্জ করেন কিপার নুরুল হাসান সোহান।  পাঁচ রান পেনাল্টি গুণে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ওভার ভাল করা মোস্তাফিজও হয়ে যান আলগা। তার তৃতীয় ওভারে ছক্কা-চারে আসে ১২ রান।

তাসকিন তার তৃতীয় ওভারেও করেন বল। তাকে ছক্কা হাঁকান ডি কক। রুশো মারেন টানা তিন চার। এর আগের ওভারে হাসানও দেন ১৩ রান।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে সর্বোচ্চ জুটির রেকর্ড গড়ে অবশেষে অনিয়মিত বোলার আফিফ হোসেনের বলে ভাঙে জুটি। রুশো তাণ্ডবে কিছুটা আড়ালে পড়ে থাকা ডি কক ছক্কার চেষ্টায় ফেরেন ৩৮ বলে ৬৩ রান করে। ৮৫ বলে ভাঙে ১৬৩ রানের জুটি।

স্লগ ওভারে দ্রুত আরও রান বাড়ানোর তাড়ায় ক্রিস্টিয়ান স্টাভসকে নামিয়েছিল প্রোটিয়ারা। সাকিবের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ৭ বলে ৭ রান করেন তিনি। রুশো ৫২ বলে তুলে নেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি তার দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।

১৯তম ওভারে সাকিবের বলে থামেন রুশো। এগিয়ে এসে আরেকটি ছক্কার চেষ্টায় থামেন ১০৯ রানে। ৫৬ বলের ইনিংসে এই বাঁহাতির ব্যাট থেকে আসে ৭ চার আর ৮ ছক্কা। প্রথম ওভারে ২১ রান দেয়া সাকিব বাকি দুই ওভারে কিছুটা পুষিয়ে দেন। তার ৩ ওভার থেকে আসে ৩৩ রান। উইকেট না পেলেও দলের সেরা বোলার ছিলেন মোস্তাফিজ। তার ৪ ওভার থেকে ২৫ রানের বেশি নিতে পারেনিন রুশো-ডি কক।

মাঝের ওভারের তাণ্ডবে মনে হচ্ছিল ২৩০ রানের কাছে যাবে বাভুমার দল। ১০ ওভার শেষে প্রোটিয়াদের পুঁজি ছিল ৯১। ১৫ ওভার শেষে সেটা হয়ে যায় ১৭১। অর্থাৎ মাঝের ৫ ওভারে আসে ৮১ রান। তুলনায় শেষ ৫ ওভারে তেমন রান যুক্ত করতে পারেনি তারা। ঘুরে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ দেয় ৩৪ রান। তবে এই রান টপকেও জিততে হলে রীতিমতো রেকর্ড গড়ে নিজেদের নতুন সামর্থ্যের প্রমাণ দিতে হবে লাল সবুজের প্রতিনিধিদের।

Comments

The Daily Star  | English

Court orders to freeze, attach ex-IGP Benazir’s properties

A Dhaka court today ordered to freeze and attach all moveable and immovable properties of Benazir Ahmed, former inspector general of police, in connection with the allegations of corruption brought against him

1h ago