ক্যামালিয়ট অ্যাপে অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ যন্ত্রে রূপান্তর

এক চমৎকার অ্যাপ হল ‘ক্যামালিয়ট’, যার মাধ্যমে স্যাটেলাইট বা কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে ডেটা সংগ্রহ, পর্যবেক্ষণ বা নিরীক্ষণ করা সম্ভব। আজকের লেখায় থাকছে এই অ্যাপের বৃত্তান্ত। 
ক্যামালিয়ট অ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ যন্ত্রে রূপান্তর করতে পারে। ছবি: ক্যামালিয়টের সৌজন্যে
ক্যামালিয়ট অ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ যন্ত্রে রূপান্তর করতে পারে। ছবি: ক্যামালিয়টের সৌজন্যে

আধুনিক স্মার্টফোনগুলো অত্যন্ত শক্তিশালী। পুরনো আমলের অনেক কম্পিউটারের চেয়েও দ্রুত কাজ করতে পারে এই ফোনগুলো। যার ফলে, প্রথাগত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অ্যাপ ছাড়াও স্মার্টফোনের রয়েছে নানা ব্যবহার।

এক চমৎকার অ্যাপ হল 'ক্যামালিয়ট', যার মাধ্যমে স্যাটেলাইট বা কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে ডেটা সংগ্রহ, পর্যবেক্ষণ বা নিরীক্ষণ করা সম্ভব। আজকের লেখায় থাকছে এই অ্যাপের বৃত্তান্ত। 

ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি বা ইএসএ'র ক্যামালিয়ট অ্যাপ ব্যবহার করে আপনি সহজেই গ্লোবাল ন্যাভিগেশন স্যাটেলাইট সিস্টেম বা জিএনএসএস থেকে স্যাটেলাইট ডেটা সংগ্রহ করতে পারবেন। আপাতত শুধু অ্যান্ড্রয়েডের জন্য অ্যাপটি পাওয়া যাচ্ছে।

আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ যন্ত্রে পরিণত করার পাশাপাশি, ক্যামালিয়টের মাধ্যমে আপনি বৈজ্ঞানিক গবেষণায় যোগ দিতে পারবেন এবং আবহাওয়ার পূর্বাভাস উন্নত করতেও বিজ্ঞানীদের সাহায্য করতে পারবেন।

চলুন দেখে নেওয়া যাক, ক্যামালিয়ট কীভাবে কাজ করে এবং অ্যাপটি আপনি কীভাবে ব্যবহার করতে পারবেন সে সম্পর্কে।

ক্যামালিয়ট যেভাবে কাজ করে

ক্যামালিয়ট হল মূলত একটি অ্যাপ যা জিএনএসএস থেকে সরাসরি ডেটা সংগ্রহ করতে পারে। জিএনএসএস অনেকগুলো স্যাটেলাইটের সাহায্যে কাজ করে। যেগুলো পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে এবং অবস্থান ও ন্যাভিগেশনের মতো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ডেটা সরবরাহ করতে সহায়তা করে। আমাদের সবচেয়ে পরিচিত এবং প্রচলিত জিএনএসএস ব্যবস্থা হল জিপিএস, যা আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রায় সবসময়ই ব্যবহার করে থাকি।

বর্তমানে অনেক স্মার্টফোনই জিএনএসএস থেকে স্যাটেলাইট ডেটা গ্রহণ করতে ডুয়েল-ফ্রিকোয়েন্সি স্যাটেলাইট ন্যাভিগেশন রিসিভার ব্যবহার করে। ক্যামালিয়টও ডেটা সংগ্রহের জন্যে একই প্রযুক্তি ব্যবহার করে। ইএসএ'র তথ্য অনুযায়ী, ৫০টিরও বেশি ফোন মডেলের এই রিসিভার রয়েছে।

ক্যামালিয়টের প্রাথমিক উদ্দেশ্য হল জিএনএসএস থেকে স্যাটেলাইট ডেটা সংগ্রহ করা। যে ডেটাগুলো বিজ্ঞানীরা মেশিন লার্নিংয়ের মাধ্যমে পৃথিবী এবং মহাকাশ আবহাওয়ার পূর্বাভাসের নতুন একটি মডেল তৈরিতে ব্যবহার করবে।

যেভাবে আপলোড করবেন। ছবি: সংগৃহীত
যেভাবে আপলোড করবেন। ছবি: সংগৃহীত

ক্যামালিয়টের ওয়েবসাইটে বলা হ, 'বিশ্বব্যাপী অনেক মোবাইল ফোন থেকে ক্রাউডসোর্সড জিএনএসএস ডেটা ব্যবহার করে, আমরা আবহাওয়ার পূর্বাভাস মডেলগুলোতে আরও ভাল ইনপুট তৈরি করার আশা করছি। যাতে করে স্থানীয় বৃষ্টিপাতের ঘটনাগুলোর আরও সঠিকভাবে পূর্বাভাস দেওয়া যায়'৷

আপনি যদি মহাকাশ সম্পর্কে আগ্রহী হন, তাহলে আপনি এই ডেটা ডাউনলোড করতে পারবেন। চাইলে আপনার বিভিন্ন গবেষণা বা প্রকল্পতেও সেগুলো ব্যবহার করতে পারবেন—এতে কোনো বাধা নেই।

তবে আপনি অ্যাপের মাধ্যমে স্টারলিংকের স্যাটেলাইট ট্র্যাক করতে পারবেন না।

অ্যাপটি শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েডে পাওয়া যাচ্ছে, আইফোনে পাবেন না। এছাড়া ক্যামালিয়ট অ্যাপটি সুনির্দিষ্ট কিছু অ্যান্ড্রয়েড ফোনে চলে এবং গুগল প্লে স্টোর থেকে আপনি এটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন।

অ্যাপটি যেভাবে ব্যবহার করবেন

চলুন দেখে নেওয়া যাক, মহাকাশ পর্যবেক্ষণ বা নিরীক্ষণে ক্যামালিয়ট অ্যাপটি যেভাবে ব্যবহার করবেন।

যেভাবে আপলোড করবেন। ছবি: সংগৃহীত
যেভাবে আপলোড করবেন। ছবি: সংগৃহীত
  • প্রথমেই নিশ্চিত করুন আপনার ফোনে জিপিএস চালু আছে। তারপর অ্যাপটি চালু করুন। প্রথমবার অ্যাপটি খোলার ক্ষেত্রে স্ক্রীনে প্রদত্ত প্রাথমিক নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করুন।
  • তারপর, নীচে ডানদিকে হ্যামবার্গার মেনুতে ট্যাপ করুন। সেখান থেকে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে বা সাইন ইন করতে রেজিস্টার/লগইন নির্বাচন করুন৷
  • তারপরের ধাপে হোম ট্যাবে যান। সরাসরি স্যাটেলাইট ডেটা সংগ্রহ করতে 'স্টার্ট লগিং' লেখা বাটনে ট্যাপ করুন। অথবা, স্টার্ট লগিং বাটনে ট্যাপ করার আগে কন্টিনিউয়াস মোড চালু করুন। যাতে করে অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে লগিং এবং আপলোড প্রক্রিয়া চালিয়ে যেতে পারে।
  • লগিং শুরু হয়ে গেলে, ব্যাকগ্রাউন্ডে কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্যে লগ ইন ব্যাকগ্রাউন্ডে ট্যাপ করতে পারেন।
  • স্যাটেলাইট ডেটা সংগ্রহ বন্ধ করতে স্টপ লগিংয়ে ট্যাপ করুন। আপনি যদি কন্টিনিউয়াস মোড চালু না করে থাকেন তাহলে অ্যাপটি আপনাকে জিজ্ঞাসা করবে আপনি কখন সংগৃহীত ডেটা আপলোড করতে চান। আপনি আপলোডের জন্যে 'নাও' বা এখন কিংবা 'লেটার' বা পরে যেকোনো একটি অপশন বেছে নিতে পারবেন।

নাও অপশনটি নির্বাচন করলে আপনাকে আপলোড আইকন ট্যাবে নিয়ে যাওয়া হবে এবং ডেটা স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপলোড হবে৷ আপলোড সফল হয়েছে কিনা তা আপনি একটি লগ ফাইল থেকে দেখে নিতে পারবেন। আপনি যদি লেটার নির্বাচন করেন, তাহলে আপনাকে আপলোড ট্যাবের লগ ফাইলের পাশের আপলোড আইকনে ম্যানুয়ালি ট্যাপ করতে হবে।

আপনার সকল লগ ফাইল আপলোড করতে, আপলোড ট্যাবের উপরের ডানদিকে আপলোড অল বাটনটি ব্যবহার করুন৷ আপনি যদি এই লগগুলো ব্যবহার করতে চান, তাহলে আপনি ডট আরএনএক্স ফাইল আকারে সেগুলো ডাউনলোড করতে পারবেন।

ভালোভাবে পরিমাপ নিশ্চিত করবেন যেভাবে

আরও ভালো ফলাফলের জন্য, যেখানে আকাশ দেখা যায় সেখানে আপনার ডিভাইসটিকে রাখার পরামর্শ দেয়া হয়। এছাড়া, ডেটা সংগ্রহ করার সময়ও এটিকে স্থানান্তর করবেন না। আরও নির্ভুল ডেটা সংগ্রহের জন্যে মেজারমেন্ট কোয়ালিটি ইন্ডিকেটর আপনাকে সাহায্য করবে। একটি সবুজ সূচক আইকন দেখা গেলে বুঝবেন আপনি ডেটা ভালভাবে সংগ্রহ করছেন। অন্য কোনো সূচক দেখলে বুঝবেন কোনো সমস্যা আছে।

ক্যামেলিয়ট সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে ভিডিও

বিভিন্ন সমস্যার কারণে কম গুণমানের ডেটা সংগ্রহ হতে পারে। কম সংখ্যক জিএনএসএস স্যাটেলাইট থেকে ডেটা সংগ্রহ, আপনার ডিভাইসের অবস্থান, আপনার ফোন ক্রমাগত জায়গা পরিবর্তন বা নড়াচড়া করলে, আপনার জিপিএস চালু না থাকা সহ নানা কারণে ডেটার গুণমানে প্রভাব পড়তে পারে।

ক্যামালিয়ট অত্যন্ত শক্তিশালী একটি অ্যাপ। যদিও অ্যাপটির মূল উদ্দেশ্য বিজ্ঞানের উন্নতির জন্যে ক্রাউডসোর্সড ডেটা সংগ্রহ। তবে আপনি চাইলে আপনার নিজস্ব বিভিন্ন গবেষণা বা প্রকল্পের জন্যেও সংগৃহীত ডেটা ব্যবহার করে উপকৃত হতে পারবেন। এছাড়া অ্যাপটির মাধ্যমে বিজ্ঞানীদের সংগৃহীত ডেটা, আবহাওয়া পূর্বাভাসের মডেলগুলোকে আরও নির্ভুলভাবে ভবিষ্যদ্বাণী করতে সাহায্য করবে।

যেসব ফোনে এই অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে, তার তালিকা পেতে ক্লিক করুন

গ্রন্থনা: আহমেদ বিন কাদের অনি

তথ্যসূত্র: এমইউও

Comments

The Daily Star  | English
 foreign serial

Iran-Israel tensions: Dhaka wants peace in Middle East

Saying that Bangladesh does not want war in the Middle East, Foreign Minister Hasan Mahmud urged the international community to help de-escalate tensions between Iran and Israel

3h ago