বট অ্যাকাউন্ট ঠেকাতে এক্সে মাসিক চার্জ চালু করতে চান মাস্ক

গত বছরের অক্টোবরে ৪৪ বিলিয়ন ডলারে টুইটার কিনে নেওয়ার পর থেকে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছেন মাস্ক। এমন কী এর নামও পালটে ‘এক্স’ রাখেন তিনি।
মার্কিন কংগ্রেসের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন মাস্ক। ফাইল ছবি: এএফপি
মার্কিন কংগ্রেসের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন মাস্ক। ফাইল ছবি: এএফপি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্সের (সাবেক টুইটার) সব ব্যবহারকারীদের জন্য চালু হতে পারে মাসিক চার্জ। এমনটাই বলেছেন প্রতিষ্ঠানের সত্ত্বাধিকারী ইলন মাস্ক। মূলত বট অ্যাকাউন্টের দৌরাত্ম ঠেকাতেই এই উদ্যোগ নিতে চান তিনি।

আজ মঙ্গলবার ইলন মাস্কের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে এএফপি।

গত বছরের অক্টোবরে ৪৪ বিলিয়ন ডলারে টুইটার কিনে নেওয়ার পর থেকে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছেন মাস্ক। এমন কী এর নামও পালটে 'এক্স' রাখেন তিনি।

শুরুতেই তিনি হাজারো কর্মী ছাটাই করেন। এরপর চালু করেন পেইড সাবস্ক্রিপশন সেবা,  বন্ধ করেন কন্টেন্ট মডারেশন এবং সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ বেশ কয়েকজন বিতর্কিত ব্যক্তির স্থগিত থাকা অ্যাকাউন্ট চালু করে দেন।

জুলাইতে মাস্ক জানান, এই প্ল্যাটফর্মের অর্ধেক বিজ্ঞাপন রাজস্ব কমে গেছে।

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি অনেক কম্পিউটার পরিচালিত 'বট' অ্যাকাউন্ট রয়েছে এক্সে। নির্বাচনী প্রচারণা, ধর্মবিদ্বেষ বা বর্ণবিদ্বেষ ছড়ানোর কাজে এসব অ্যাকাউন্ট ব্যবহার হতে পারে।

সোমবার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে মাস্ক কথা বলেন। এ সময় আলোচনায় উঠে আসে বটের মাধ্যমে অনলাইনে ইহুদিদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়ানোর বিষয়টি। নেতানিয়াহু জানতে চান, মাস্ক এক্সের মাধ্যমে এ ধরনের বিদ্বেষ ছড়ানো ঠেকাতে কী উদ্যোগ নিচ্ছেন।

মাস্ক উত্তর দেন, তার প্রতিষ্ঠান 'এক্স সিস্টেম ব্যবহারের জন্য সামান্য পরিমাণ মাসিক পেমেন্টের বিষয়টি চালুর উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে'।

'এটাই আমার ধারণা মতে বিশাল আকারের বট-বাহিনী ঠেকানোর একমাত্র উপায়', যোগ করেন মাস্ক। 

'এ মুহূর্তে বট ব্যবহার করতে এক পেনিরও চেয়ে কম খরচ হচ্ছে। বলা যায় এক পেনির ১০ ভাগের এক ভাগ খরচ। কিন্তু যদি কাউকে এমন কী কয়েক ডলারও খরচ করতে হয়, যা খুবই সামান্য খরচ—সে ক্ষেত্রেও সামগ্রিকভাবে বট ব্যবহারের খরচ অনেক বেড়ে যাবে', বলেন মাস্ক।

মাস্ক আরো বলেন, 'এবং এ ক্ষেত্রে, নতুন বট চালু করতে গেলে আপনাকে নতুন পেমেন্ট প্রক্রিয়া খুঁজে নিতে হবে'। 

দুইজনের এই আলোচনা এক্সে সম্প্রচার করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ইহুদি সংগঠন অ্যান্টি-ডিফেমেশন লিগের (এডিএল) সঙ্গে সম্প্রতি মাস্ক বাদানুবাদে জড়িয়েছেন।

মাস্ক দাবি করেন, এডিএল তার বিরুদ্ধে ইহুদি বিদ্বেষ ছড়ানোর ভিত্তিহীন অভিযোগ এনেছে। যার ফলে বিজ্ঞাপনদাতারা এক্স থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন এবং প্রতিষ্ঠানের রাজস্ব কমে গেছে। 

 

Comments

The Daily Star  | English

Hefty power bill to weigh on consumers

The government has decided to increase electricity prices by Tk 0.70 a unit which according to experts will predictably make prices of essentials soar yet again ahead of Ramadan.

2h ago