শরীর ফিটের ৬ অ্যাপ

শরীরের ওজন ঠিক রাখতে ক্যালোরি মেপে খাওয়া-দাওয়া করা বেশ কার্যকর। সুস্থ জীবন যাপনের জন্যও এটা জরুরি। কিন্তু যদি না সঠিক উপায়ে এগোনো হয়, সেই ক্যালোরির হিসাবটা প্রায়ই গোলমেলে ঠেকে। তবে নিয়মিত অভ্যাস গড়ে তুললে বিষয়টা অনেক সহজ হয়ে ওঠে। আর ডিজিটাল যুগের বাসিন্দা হিসেবে এই কাজে স্মার্টফোন অত্যন্ত সহায়ক হতে পারে।

শরীরের ওজন ঠিক রাখতে ক্যালোরি মেপে খাওয়া-দাওয়া করা বেশ কার্যকর। সুস্থ জীবন যাপনের জন্যও এটা জরুরি। কিন্তু যদি না সঠিক উপায়ে এগোনো হয়, সেই ক্যালোরির হিসাবটা প্রায়ই গোলমেলে ঠেকে। তবে নিয়মিত অভ্যাস গড়ে তুললে বিষয়টা অনেক সহজ হয়ে ওঠে। আর ডিজিটাল যুগের বাসিন্দা হিসেবে এই কাজে স্মার্টফোন অত্যন্ত সহায়ক হতে পারে।

এ লেখায় এমন কয়েকটি অ্যাপ নিয়ে আলোচনা হবে, যা ব্যবহারের মাধ্যমে সহজেই রাখা যাবে প্রতিদিনের ক্যালোরির হিসাব-নিকাশ।

মাই ফিটনেস প্যাল

এই অ্যাপটি ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ব্যবহৃত হচ্ছে, এবং দিন দিন এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে বৈ কমছে না। এই অ্যাপটিতে ক্যালোরি হিসাবের পাশাপাশি খাবারের পুষ্টি উপাদানেও নজরদারি করা যায়। সেইসঙ্গে প্রথম দিন থেকেই ব্যবহারকারীর উন্নতি সম্পর্কে একটি রেকর্ড রাখা হয়। এই অ্যাপে চাইলে নিজের মতো করে রেসিপি তৈরি করা যায় এবং পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানা যায়। এমনকি রান্না না করে বাইরে কোথাও খেলেও সেই রেস্তোরাঁর বিভিন্ন খাবারের ইনপুট দিয়ে খুব দ্রুত ক্যালোরি ও পুষ্টিমান সম্পর্কে অবগত হওয়া যায়। এই অ্যাপ ব্যবহারকারীরা একটি ডিজিটাল কমিউনিটির মতো। তারা একে অপরের সঙ্গে তাদের অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করতে পারেন।

লুজ ইট!

এই অ্যাপের নামেই আছে মেদ ঝরানোর বার্তা। এই ক্যালোরি ট্র্যাকার অ্যাপটি ব্যবহার খুবই সহজ কিন্তু কাজে বেশ পুঙ্খানুপুঙ্খ। ক্যালোরি হিসেবের পুরোটা প্রক্রিয়া সহজ করাই এর উদ্দেশ্য। ব্যবহারের শুরুতে অ্যাপটি বেশ কিছু প্রশ্ন করে, যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীর একটি প্রোফাইল তৈরি হয় এবং ব্যক্তিগত কিছু লক্ষ্য স্থির করা হয়। প্রতিটি ব্যবহারকারীর জন্য আলাদা করে খাবার খুঁজে দেখবার অ্যালগোরিদম সম্পর্কে আগে থেকেই একটি পূর্বাভাস দেবার চেষ্টা করে অ্যাপটি। এ ছাড়াও এই অ্যাপের আছে বেশ সক্রিয় একটি ব্যবহারকারী সম্প্রদায়, যাদের সঙ্গে প্রয়োজনে কথা বলে বিভিন্ন বিষয়ে দ্বিধা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

ক্রোনোমিটার

বিনামূল্যে ব্যবহার করার জন্য এই অ্যাপটি বেশ কার্যকর। এতে বিভিন্ন ফিচার রয়েছে, যা সবাই বিনামূল্যে উপভোগ করতে পারবেন। তবে কেউ চাইলে সাবস্ক্রিপশন ফি দেবার মাধ্যমে প্রিমিয়াম সংস্করণ নিতে পারেন। সাধারণত আমরা যে খাবার খাই, সেগুলোর ইনপুট দেবার মাধ্যমে কিংবা অ্যাপের নিজস্ব স্ক্যানারের মাধ্যমে ক্যালোরির হিসাব রাখা যাবে। খাদ্যসংক্রান্ত ডাটাবেস অতটা সমৃদ্ধ নয় বলে নিজে থেকে রেসিপি তৈরি করতে হতে পারে। এছাড়া শারীরিক ব্যায়ামের বিষয়েও ক্রোনোমিটারে রেকর্ডের অপশন রয়েছে। খাদ্যের পাশাপাশি, ব্যায়ামের ক্ষেত্রেও অ্যাপটি কার্যকর। আর তাই ওজন কমানোর যাত্রায় ক্রোনোমিটার উভয়ভাবেই সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে। অ্যাপে থাকা আগের ব্যায়ামের সঙ্গে নিজস্ব নতুন ব্যায়ামের চর্চাও করা যাবে এই অ্যাপের সাহায্যে।

মাই প্লেট

যদি কেউ এমন ফুড ট্র্যাকিং অ্যাপ খুঁজে থাকে, যাতে শুধু ক্যালোরি বা ব্যায়ামের রেকর্ডই রাখা হবে না, সেইসঙ্গে অনুসরণ উপযোগী কিছু পরামর্শও দেওয়া হবে– সেক্ষেত্রে মাইপ্লেট বেশ কাজের অ্যাপ। ওজন ঝরানোর যাত্রা যারা শুরু করতে যাচ্ছেন, তাদের জন্য উপযোগী হবে অ্যাপটি। এতে প্রতিটি ব্যবহারকারীর জন্য পৃথক ও কাস্টমাইজড প্রোফাইল, লক্ষ্য থাকে–-যার মধ্যে তাদের খাবার ও ক্যালোরির হিসেব রাখা হয়। শারীরবৃত্তীয় কিছু তথ্য প্রবেশ করানোর মাধ্যমে এই অ্যাপে যাত্রা শুরু করা সম্ভব। এছাড়া এতে বিভিন্ন ব্যায়ামের তালিকা রয়েছে। ব্যায়ামের জন্য যথেষ্ট সময় না থাকলে এই অ্যাপের ভাণ্ডারে থাকার মজার মজার রেসিপি দেখে খাবার তৈরি করারও উপায় রয়েছে। এবং এই রেসিপিগুলো সব প্রোফাইলের জন্য আলাদা করে মানানসই।

হেলদিফাই মি

শুধু ক্যালোরির হিসাবের জন্য এই অ্যাপ নয়, বরং ওজন ঝরানোর জন্য কার্যকর অ্যাপগুলোর একটি হেলদিফাই মি। পরিচ্ছন্ন ইউজার ইন্টারফেস এবং সহজ ব্যবহার কৌশলের জন্য এই অ্যাপটি বেশ পরিচিত। ক্যালোরি ও ব্যায়ামের রেকর্ড ধরে রাখার পাশাপাশি শরীরের বিভিন্ন অংশের আলাদা ব্যায়ামও সম্পর্কেও এই অ্যাপ থেকে জানা যায়। যদি কেউ আলাদা করে পেটের মেদ ঝরাতে চায়, বা পায়ের ওজন কমাতে চায়– সেক্ষেত্রে হেলদিফাই মি নির্দিষ্ট পরামর্শ দেবে, খোঁজ দেবে বিশেষ ব্যায়ামের। এতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্যও একধরনের পরিকল্পনা রয়েছে, যা কিনা অন্যান্য অ্যাপে দেখা যায় না। সঠিক খাবার গ্রহণের মাধ্যমে সুষ্ঠু রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি করতে নিত্যদিনের জীবনযাত্রা কীভাবে সাহায্য করে বা ঠিক সময়ে ঘুম এবং হাত ধোয়ার মতো স্বাস্থ্যকর অভ্যাস নিয়েও এই অ্যাপে সহায়ক পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

ক্যালোরি

কম সময়ে ওজন কমিয়ে ফেলার মতো কঠিন সব লক্ষ্য পূরণ করতে যেসব অ্যাপ সহায়ক ভূমিকা রাখে, তার মধ্যে 'ক্যালোরি' অন্যতম। এই অ্যাপটি ব্যবহারকারী সম্পর্কে শুধু তথ্যই নেবে না, সেইসঙ্গে লক্ষ্য স্থির করার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময়সীমাও বেছে নিতে বলবে। এই অ্যাপটির আজীবন সাবস্ক্রিপশন নেওয়া সম্ভব ২৯.৯৯ ডলারের মাধ্যমে। ঠিক সস্তা না হলেও দীর্ঘকালীন পরিকল্পনায় সাশ্রয়ী হতে পারে এই অ্যাপটি। এতে ব্যবহারকারী সম্প্রদায়ের সঙ্গে যোগাযোগের উপায় নেই, তবে ম্যাক্রো ডায়েট ও ক্যালোরির হিসাব রাখার ক্ষেত্রে এটি অন্যতম কার্যকরী অ্যাপ। এতেও বিভিন্ন রেসিপির সুযোগ রয়েছে।

 

তথ্যসূত্র: https://www.makeuseof.com/best-apps-count-calories-android-iphone/?utm_term=Autofeed&utm_campaign=Echobox&utm_medium=Social-Distribution&utm_source=Facebook&fbclid=IwAR1pck65V-fTr6ca1F4gpTUPO9S8D6d_iI9XGW_c1Mn5_j7n5b3f0FTDjAY#Echobox=1665592109

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives across the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

11h ago