মিত্র দেশ হলেও ইসরায়েল সফর করবেন না অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

আজ বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী পার্লামেন্টে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ইসরায়েলে কূটনৈতিক সফরের কোনো পরিকল্পনা তার নেই।
অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ। ছবি: সংগৃহীত

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ আগামী ২৩ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে ইসরায়েলে যাবার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে চাপ দিয়েছে দেশটির বিরোধী দল। 

আজ বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী পার্লামেন্টে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ইসরায়েলে কূটনৈতিক সফরের কোনো পরিকল্পনা তার নেই।

প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং বারবার বেসামরিক নাগরিকদের যথাসম্ভব সুরক্ষিত করার আহ্বান জানিয়েছেন।

হামাসের সঙ্গে যুদ্ধের সময় ইসরায়েল মিত্রদের কাছ থেকে সমর্থন চেয়েছে।  যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইসরায়েলে একটি সংক্ষিপ্ত সফর শেষ করে ফিরে এসেছেন। ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেইন ইসরায়েলে সফর করেছেন। যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকও ঘুরে এলেন ইসরায়েল থেকে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে মিত্র রাষ্ট্র হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার ভূমিকা কী? সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসরাইল নিরাপদ এলাকা নয় এবং আমাদের অগ্রাধিকার ছিল জড়িত হওয়া। আমরা জড়িত হয়েছি।'

তিনি আরও বলেন, 'আমি ব্যক্তিগতভাবে ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে দেখা করেছি। আমি তাকে আমার বাসভবনে নিয়েছি এবং ফিলিস্তিনি সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে, অস্ট্রেলিয়ার ইহুদি সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেছি।'

আলবানিজ ইসরায়েল সফর না করার সিদ্ধান্তকে আরও গ্রহণযোগ্য করার জন্য বলেছেন, 'যে নেতারা ইসরায়েল সফর করেছেন তারা নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য।'

২০২১ সালে অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরক্ষা সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

২০২২ সালে নির্বাচনে জয়লাভের পর থেকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে নবমবারের মতো ওয়াশিংটন ডিসি সফর করবেন।

 

আকিদুল ইসলাম: অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসী লেখক, সাংবাদিক
 

Comments