ক্যাম্পাস

চবিতে নিয়োগ পরীক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) প্রভাষক পদে নিয়োগে পরীক্ষা দিতে আসা এক প্রার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।
নূর হোসাইন। ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) প্রভাষক পদে নিয়োগে পরীক্ষা দিতে আসা এক প্রার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা চলাকালে প্রশাসনিক ভবনে অবস্থিত উপাচার্যের সভাকক্ষের বাইরে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, মৌখিক পরীক্ষা শেষ করার পর চবি শাখা ছাত্রলীগের উপগ্রুপ ভার্সিটি এক্সপ্রেসের (ভিএক্স) কর্মীরা নূর হোসাইন নামে ওই প্রার্থীকে সাবেক 'শিবির ক্যাডার' অভিযোগ তুলে মারধর করেন।

ভুক্তভোগী নূর হোসাইন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের ২০০৩-০৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

তবে মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও ভিএক্সের নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'নূর হোসাইন তখনকার সময়ে শিবিরের দুর্ধর্ষ ক্যাডার ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ আব্দুর রব হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি কাজী মারুফ ইসলামকে তার নেতৃত্বে মারধর করা হয়। সেজন্য আমার কর্মীরা তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে ভিসি অফিসে যায় এবং তাকে খুঁজতে থাকে। পরবর্তীতে আমরা তার বিরুদ্ধে প্রক্টর অফিসে মৌখিক অভিযোগ দেই।'

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া ডেইলি স্টারকে বলেন, 'রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক পদে মৌখিক পরীক্ষা (ভাইভা বোর্ড) চলাকালে কয়েকজন বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ কর্মী ভিসি অফিসে এসে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করেন। আমরা প্রক্টরিয়াল বডি এসে তাদের ভিসি অফিস থেকে বের করে দেই।'

প্রক্টর আরও বলেন, 'নিয়ম অনুযায়ী যে কারও নিয়োগ বোর্ডে অংশগ্রহণের অধিকার রয়েছে। তবে প্রার্থীর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ থাকলে লিখিত আকারে দেওয়ার জন্য তাদের (ছাত্রলীগ কর্মী) বলা হয়েছে।'

Comments