শিক্ষা

‘প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা নেওয়ার কারণে গত ৪ বছরেও প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি’

প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা নেওয়ার কারণে গত চার বছরেও প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তবে এ বছর দিনাজপুরে যা ঘটেছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।
দীপু মনি
চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে শনিবার জেলা প্রশাসন আয়োজিত সম্প্রীতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। ছবি: আলম পলাশ

প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা নেওয়ার কারণে গত চার বছরেও প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তবে এ বছর দিনাজপুরে যা ঘটেছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

আজ শনিবার দুপুরে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন আয়োজিত সম্প্রীতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, 'দিনাজপুরে একটি পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব অনেকগুলো প্রশ্নপত্রের প্যাকেট একসাথে করে নিয়ে গেছেন। এটি কী কারণে হলো, সেই বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে এবং সেই শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'

এর আগে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, 'আমাদের দেশে যেসব সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটছে এ জন্য অপরাজনীতি সবচেয়ে বড় কারণ।

তিনি বলেন, 'কিছু অপরাজনীতি ধর্মের লেবাস পড়ে এদেশে সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়িয়েছে। প্রকৃত ধর্মপ্রাণ মানুষ বা ধর্মীয় নেতারা কখনো সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়ায় না।' 

জেলা প্রশাসক কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে এ সময় সমাবেশে মন্ত্রী আরও বলেন, 'কোনো কিছু ঘটলেই এক শ্রেণির মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এসব ছড়িয়ে অস্থিরতার সৃষ্টি করছে। বিভিন্ন ঘটনার পর আমরা তার প্রমাণও পেয়েছি।'

এ জন্য কোনো কিছু যাচাই ছাড়া বা নিশ্চিত হওয়া ছাড়া কোনো ধরনের বিভ্রান্তিকর কিছু শেয়ার না করার আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জেআর ওয়াদুদ টিপু, জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা সাইফুদ্দিন খন্দকার, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল, হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাশেদুল ইসলামসহ অন্যান্যরা।

Comments