ছাত্র রাজনীতি ও অন্যান্য
শাবিপ্রবি

‘হয়রানির’ প্রতিবাদ করায় দলীয় কর্মীকে পেটাল ছাত্রলীগ

বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে 'উত্যক্ত' করার প্রতিবাদ জানানোয় তাকে মারধর করা হয় বলে জানা গেছে।
শাবিপ্রবি
স্টার ফাইল ফটো

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) নিজ দলের এক কর্মীকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

গতকাল সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহপরান হলে এ ঘটনা ঘটে। 

মারধরের শিকার ফারদিন আহমেদ ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী এবং শাবিপ্রবির ছাত্রলীগ নেতা মেহেদী হাসানের অনুসারী।

বর্তমানে তিনি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে 'হয়রানি' করার প্রতিবাদ জানানোয় তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী ওই দুই শিক্ষার্থীকে হয়রানি করেছিল বলে জানা গেছে।

ফারদিনের বন্ধুরা দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাদের এক বন্ধু ও বান্ধবী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মাঠে আড্ডা দেওয়ার সময় ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী তাদের উত্ত্যক্ত করে।

খবর পেয়ে ফারদিন সেখানে ছুটে যান যেখানে তিনি ওই নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

ফারদিন ডেইলি স্টারকে বলেন, 'উত্যক্তকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-দপ্তর সম্পাদক সজীবুর রহমানের অনুসারী।

পরে রাত ১০টার দিকে ফারদিন হলে ফেরার পর সজীবের অনুসারী সাজ্জাদুর রহমানের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী তাকে মারধর করে।

ফারদিনকে উদ্ধার করতে গিয়ে কয়েকজন বন্ধুও মারধরের শিকার হন বলে জানা গেছে।

এর আগে, রোববার রাতে সামুদ্রিক বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ও বিভাগ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সানজিদ চৌধুরীকে মারধর করে সজীবের অনুসারীরা।

যোগাযোগ করা হলে সজীব ডেইলি স্টারকে জানান, জুনিয়রদের সঙ্গে কিছু বিষয় নিয়ে তর্কাতর্কি হয় এবং পরে সিনিয়ররা তা মিটিয়ে দেন।

মন্তব্যের জন্য সাজ্জাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

ঘটনার বিষয়ে জানতে শাহপরান হলের প্রভোস্ট ডা. মোহাম্মদ মিজানুর রহমান খানকে ফোন করা হলেও, তিনি রিসিভ করেননি।
 

Comments