লাহোর থেকে শবনম বললেন, ‘আমি ভালো আছি’

১৯৬০ দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম। তিনি বাংলাদেশের সিনেমা ছাড়াও পাকিস্তানের সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। বিশেষ করে উর্দু সিনেমা ‘চান্দা’য় অভিনয় তাকে অনেক খ্যাতি এনে দিয়েছিল। বাংলাদেশে ‘হারানো দিন’ সিনেমায় অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা পান তিনি।
শবনম। ছবি: স্টার

১৯৬০ দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম। তিনি বাংলাদেশের সিনেমা ছাড়াও পাকিস্তানের সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। বিশেষ করে উর্দু সিনেমা ‘চান্দা’য় অভিনয় তাকে অনেক খ্যাতি এনে দিয়েছিল। বাংলাদেশে ‘হারানো দিন’ সিনেমায় অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা পান তিনি।

শবনম এখন পাকিস্তানে আছেন। কয়েক মাস আগে তিনি সেখানে বেড়াতে যান। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশে ফিরতে পারেননি। দেশে ফেরার টিকিট নিশ্চিত করেছিলেন। কিন্তু, হঠাৎ পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তাই তিনি সময় মতো দেশে ফিরতে পারেননি।

এখন তিনি লাহোরে এক বন্ধুর বাড়িতে আছেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে শবনমের সঙ্গে কথা হয় দ্য ডেইলি স্টারের। তিনি বলেন, ‘সৃষ্টিকর্তার রহমতে আমি ভালো আছি। একটাই সমস্যা। তা হলো, সবাই ঘরবন্দি। তারপরও ভালো আছি। ঘরের ভেতরে গল্প করেই বেশিরভাগ সময় কাটছে।’

তিনি জানান, তিন মাস আগে ফয়সালাবাদে এক ভক্তর বাড়িতে তিনি উঠেছিলেন। প্রায় দুই মাস সেখানে ছিলেন। এখন লাহোরে আছেন।

পাকিস্তানি অনেক সিনেমায় অভিনয় করায় সেখানে তার অনেক ভক্ত-বন্ধু-শুভাকাঙ্ক্ষী আছে। এখনো তাদের অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ আছে তার।

শবনম বলেন, ‘সবকিছু সুন্দর হয়ে যাক, পৃথিবী আগের মতো সুন্দর হোক এটাই চাওয়া।’

উল্লেখ্য, শবনম ১৯৬১ সালে সিনেমায় অভিনয় শুরু করেন ‘হারানো দিন’ দিয়ে। পরের বছর উর্দু সিনেমা ‘চান্দা’য় অভিনয় করেন। দুটি সিনেমা তাকে সাফল্য এনে দেয়। এরপর তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

তার ক্যারিয়ারে আছে অনেক ব্যবসাসফল সিনেমা। তিনি প্রায় ৫০ বছরের অভিনয় জীবনে ১৮০টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তার সর্বশেষ ব্যবসা সফল সিনেমা ‘আম্মাজান’।

Comments