অস্ট্রেলিয়াকে স্লেজিংয়ের জবাবও দিয়েছে বাংলাদেশ

ক্রিকেট খেলাটায় সবচেয়ে সফল দল অস্ট্রেলিয়া। আবার এই খেলায় প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে গালাগালিতেও ওস্তাদ তারাই। ভদ্রভাষায় যাকে বলা হয় স্লেজিং। মাঠে তাদের আগের সেই দাপট নেই, কিন্তু মুখে ঠিকই লেগে আছে পুরনো অভ্যাস।
অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট জয়ের পর মিরপুরের শেরে বাংলায় মুশফিকুর রহিমদের উদযাপন। ছবি: এএফপি

ক্রিকেট খেলাটায় সবচেয়ে সফল দল অস্ট্রেলিয়া। আবার এই খেলায় প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে গালাগালিতেও ওস্তাদ তারাই। ভদ্রভাষায় যাকে বলা হয় স্লেজিং। মাঠে তাদের আগের সেই দাপট নেই, কিন্তু মুখে ঠিকই লেগে আছে পুরনো অভ্যাস। বাংলাদেশও জানত ওটা। এবার ব্যাট বলের লড়াইয়ের পাশাপাশি মুখের জবাবও দিয়েছে বাংলাদেশ। জানালেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমই।

আগের দিন উসমান খাজাকে আউট করে মুখের সামনে গিয়ে কি যেন বললেন সাকিব। তেতে উঠলেন তখন উইকেটে থাকা ওয়ার্নারও। তাকে শান্ত করলেন গিয়ে আবার তামিম। এদিন এই তামিমের সঙ্গেই লেগে গেল ওয়ার্নারের। ম্যাথু ওয়েড আউট হয়ে ফেরত যাওয়ার সময়ও এক চোট হয়ে গেল তামিমের সঙ্গে। মিটমাট করলেন আম্পায়াররা। পুরো ম্যাচেই এমন ঘটনা দেখা গেছে।

মুশফিককে তা মনে করিয়ে দিতেই বললেন, ‘ওরাও বুঝেছে, বাংলাদেশ কতটা আগ্রাসী হতে পারে। শুধু ব্যাট-বল না, শরীরী ভাষাতেও ওরা সেটা টের পেয়েছে। ওরা আমাদের জুনিয়রদের অনেক কথা বলেছে, যা আমরা আবার ফিরিয়ে দিয়েছি। আমরা যে আগের জায়গায় নেই, সেটা ওরা হাড়েহাড়ে টের পেয়েছে।’

ক্রিকেট খেলাটা যতটা ব্যাট-বলের ঠিক ততটাই মনস্তাত্ত্বিক। ছোটখাটো ঘটনাতেও বোঝা যায় কে মানসিকভাবেই পিছিয়ে গেছে আর কে বুকে ধরে রেখেছে সাহস। মুশফিকের চোখ এড়ায়নি সেসব, ‘আজ যদি লক্ষ্য করে থাকেন, দেখবেন, লাঞ্চের আগে ছয় মিনিট ছিল। তখন ম্যাক্সওয়েল প্রায় পাঁচ মিনিট সময় নিচ্ছিল যেন ওই ওভারের পর আর কোনো ওভার না হয়। যেখানে অস্ট্রেলিয়া বিশ্ব ক্রিকেটকে শাসন করতে চায়, তারা পর্যন্ত এমন ব্যাকফুটে চলে গেছে তখন যে, তারা চাচ্ছে না আরেকটা ওভার খেলতে। এটা তো অনেক বড় একটা বার্তা।’

২০০৬ সালে ফতুল্লা টেস্টের কথা মনে করে কদিন আগে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছিলেন, ওই ম্যাচে রিকি পন্টিংরা ব্যাটিংয়ের সময়ও গালাগাল করছিল। সাধারণ ফিল্ডিং দলকেই দেখা যায় স্লেজিং করতে। অস্ট্রেলিয়ানরা ব্যাটিংয়ের সময়ও তা করে ক্ষেপিয়ে তুলতে চায় বোলারদের। অস্ট্রেলিয়ার কৌশল অস্ট্রেলিয়াকেই ফেরত দেওয়ার কথা মুশফিকের কণ্ঠে, ‘এটা আসলে খেলারই অংশ। অস্ট্রেলিয়ানরা এসব খুব ভালো পারে, আমরাও ওদের থেকে শিখেছি।’

সব বাধা পেরিয়ে দিনশেষে বাংলাদেশই জিতেছে। তবে রোমাঞ্চ ছড়ানোয় জয় হয়েছে টেস্ট ক্রিকেটেরও। মুশফিকও মানলেন তা। ‘এটা খুবই ভালো একটা টেস্ট। এরকম ম্যাচ মানুষকে আরও টেস্ট দেখতে উৎসাহ দেয়। ক্রিকেটের জন্য খুবই ভালো। আশা করি, এই টেস্ট শেষে ওরা আরও বেশি সম্মান দেবে।’

Comments

The Daily Star  | English
biman flyers

Biman does a 180 to buy Airbus planes

In January this year, Biman found that it would be making massive losses if it bought two Airbus A350 planes.

4h ago