প্রবাসে

বিতর্কের মধ্যেই শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন

জাপান জুড়ে বিতর্কের মধ্যেই টোকিওতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলের প্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও আন্তর্জাতিক সংস্থার ৭০০ জন বিদেশি অতিথিসহ প্রায় ৪ হাজার ৩০০ জন এ অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নেন।
কুদানজাকা কোয়েন পার্কে সাধারণ মানুষ শিনজো আবেকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন। ছবি: সংগৃহীত

জাপান জুড়ে বিতর্কের মধ্যেই টোকিওতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলের প্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও আন্তর্জাতিক সংস্থার ৭০০ জন বিদেশি অতিথিসহ প্রায় ৪ হাজার ৩০০ জন এ অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নেন।

বিদেশি অতিথিদের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টোনি আলবানিজ, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী  হান ডাক-সু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আজ মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে রাজধানীর প্রাণকেন্দ্র চিয়োদা সিটিতে জাপান জাতীয় হল 'নিপ্পন বুদোকানে' শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সঙ্গীত বাজানোর পর দাঁড়িয়ে নীরবতা পালনের মাধ্যমে আবের প্রতি সম্মান জানানো হয়। এরপর বড় পর্দায় আবের জীবনীর ওপর একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রদর্শন করা হয়। প্রতিবেদনে আবের শৈশব, কৈশোর, শিক্ষাজীবন, রাজনৈতিক ক্যারিয়ার, প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকালীন সময়ের চিত্র তুলে ধরা হয়।

শেষকৃত্য আয়োজনে প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা, হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের স্পিকার হিরোয়ুকি হোসোদা, হাউস অব কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট  হিদেহিসা অতসুজি এবং জাপান সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি সাবুরো তোকুরা সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন। এছাড়া আবের রাজনৈতিক সতীর্থদের মধ্যে তার দীর্ঘদিনের সহচর ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা বক্তব্য রাখেন।

শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে আবের স্ত্রী আকি, ছোটভাই সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী নোবুও, ক্রাউন প্রিন্স আকিশিনো এবং ইমপেরিয়াল পরিবারের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

প্রথা অনুযায়ী সম্রাট নারুহিতো এবং সম্রাজ্ঞী মাসাকো, সম্রাট ইমেরিটাস আকিহিতো এবং সম্রাজ্ঞী ইমেরিতা মিচিকোর পক্ষ থেকে তাদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে শিবুয়া ওয়ার্ডের তোমিগায়া আবের ভস্ম বহনকারী গাড়ি তার বাড়ি ছেড়ে যাবার সময় 'সেলফ ডিফেন্স' সদস্যরা 'গার্ড অব অনার' দেয়।

এছাড়া সকাল সাড়ে ৯টা থেকে হলের কাছে কুদানজাকা কোয়েন পার্কে খোলা স্ট্যান্ডে  সাধারণ মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর ব্যবস্থা রাখা হয়।

সকালে সেখানে একপর্যায়ে অপেক্ষারতদের সারি ১ দশমিক ৭ কিলোমিটার পর্যন্ত দীর্ঘ হয়। এর ফলে আয়োজকরা সকাল ১০টার নির্ধারিত সময়ের পরিবর্তে সকাল সাড়ে ৯টায় ফুল দেওয়ার সুযোগ করে দেন।

দুটি স্ট্যান্ডের প্রতিটিতে চন্দ্রমল্লিকা এবং অন্যান্য ফুল দিয়ে ঘেরা ছিল আবের ছবি। দর্শনার্থীদের  নিরাপত্তা পরীক্ষা শেষে স্ট্যান্ডে ফুল রেখে প্রার্থনা করেন। বিকেল ৪টা পর্যন্ত শ্রদ্ধা জানানোর জন্য সুযোগ রাখা হয়।

এদিকে একটি নাগরিক গোষ্ঠী টোকিওর চিয়োদা ওয়ার্ডের একটি পার্কে রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার বিরোধিতা করে সমাবেশ করে।

রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রাজধানীজুড়ে অতিরিক্ত ২০ হাজার পুলিশ নিয়োজিত ছিল।

রাজধানীর চিয়োদা ওয়ার্ডের নিপ্পন বুদোকান হল এবং রাজধানীর অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে পুলিশ সর্বোচ্চ সতর্কতার সঙ্গে অবস্থান নেয়।  

উল্লেখ্য, গত ৮ জুলাই নারাতে উচ্চকক্ষ নির্বাচনের প্রচারে বক্তৃতা দেওয়ার সময় আবেকে পেছন থেকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

শিনজো আবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধোত্তর জাপানি প্রধানমন্ত্রী যাকে রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া দেওয়া হলো। ৫৫ বছর আগে শিগেরু ইয়োশিদাকে একই সম্মান দেওয়া হয়েছিল।

Comments