ওমানের জাতীয় লীগে বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের সাফল্য

৮টি দলের এ গ্রুপে ১২ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে প্রবাসী ভারতীয়দের দল 'ন্যাশনাল টেকনিক্যাল সার্ভিস (এনটিএস)’। চ্যাম্পিয়ন দলের সঙ্গে ১০ পয়েন্ট নিয়ে 'সিনিয়র ডি' ডিভিশনে উঠেছে রানার আপ বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাব।
খেলোয়াড়দের সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের কর্মকর্তারা। ছবি: সংগৃহীত

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানের জাতীয় লীগের 'সিনিয়র ডি' বিভাগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাব।

দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের ব্যবস্থাপনায় 'সিনিয়র ডিভিশন টি ২০ ক্রিকেট লিগ' এর 'ই' ডিভিশনের গ্রুপ পর্বে রানার আপ হয়ে এ অর্জন প্রবাসী খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বকারী ক্লাবটির।

৮টি দলের এ গ্রুপে ১২ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে প্রবাসী ভারতীয়দের দল 'ন্যাশনাল টেকনিক্যাল সার্ভিস (এনটিএস)'। চ্যাম্পিয়ন দলের সঙ্গে ১০ পয়েন্ট নিয়ে 'সিনিয়র ডি' ডিভিশনে উঠেছে রানার আপ বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাব।

শুক্রবার রাজধানী মাস্কাটের আমারাত ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বের শেষ ও রানারআপ নির্ধারণী খেলায় বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাব ২৫ রানে প্রবাসী ভারতীয় ও পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া পেইস প্লেয়ার্সকে পরাজিত করে।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের অধিনায়ক আরফাজ। ব্যাটসম্যানদের নৈপুণ্যে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৭১ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সাইফুল ইসলাম ৩৭ বল খেলে সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেন। এ ছাড়া মিরাজ ১১ বলে ১৮ রান, ওবায়েদ খান ১১ বলে ১৩ রান, আলম ৭ বলে ১৭ রান, সোহাগ ২২ বলে ২৩ রানের স্কোর তোলেন।

প্রতিপক্ষ পেইস প্লেয়ার্সের মোহাম্মদ আবরার ৩৭ রানে ৩ উইকেট, সুখন্দর সিং ২৮ রানে ২ উইকেট এবং জহির ৩৭ রানে ২ উইকেট নেন।

জবাবে পেইস প্লেয়ার্স ১৭২ রানের জন্য খেলতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান সংগ্রহ করে। তেজেশ শেঠি ৩৩ রান এবং কামেশ মহারাজা ওআলী হাসান ২১ রান করে সংগ্রহ করেন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের ওবায়েদ ২২ রানে ২ উইকেট এবং সানি, মিজান, সাইফুল, আলম ১টি করে উইকেট করে নেন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের সাইফুল ইসলাম ৫৯ রান ও ২ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হন। এ ছাড়াও সাইফুল ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট এবং সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের জন্য সেরা ব্যাটসম্যানও নির্বাচিত হয়েছেন।

ওমানি ও বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের সঙ্গে বাংলাদেশি অনেকে দর্শক মাঠে খেলা উপভোগ করেন। মাঠে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাবের পৃষ্টপোষক ও কর্মকর্তারাও।

২০২২ সালে ক্রীড়াপ্রেমী কয়েকজন প্রবাসী উদ্যোক্তার হাতে ধরে যাত্রা শুরু করে 'বাংলাদেশ ক্রিকেট ক্লাব'। প্রবাসী বাংলাদেশি তরুণ ও উৎসাহী খেলোয়াড় নিয়ে গড়া ক্লাবটি খুব কম সময়ে ওমানের ক্রীড়াপ্রমীদের কাছে পরিচিত পায়, সেসঙ্গে পায় ধারাবাহিক সাফল্য। 'এফ' দিয়ে শুরু করে গত বছরই 'ই' ডিভিশনে উঠে। এবার আরও এক ধাপ এগিয়ে 'ডি' ডিভশনে জায়গা করে নিলো। ক্লাবটির একটি নারী ক্রিকেট দলও আছে।

নতুন সাফল্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে বেশ উচ্ছাসিত ক্লাব কর্মকতারাও।

ক্লাব প্রেসিডেন্ট আশরাফুর রহমান বলেন, 'মাত্র ২ বছরের মধ্যে এ পর্যায়ে আসতে পারব বলে আমাদের ভাবনায় ছিল না। তবে বিশ্বাস ছিল, আমাদের খেলোয়াড়রা যে পরিশ্রম-অনুশীলন করছে তাতে লক্ষ্য পৌঁছাতে বেশিদিন অপেক্ষা করতে হবে না। এখন আমরা আরও বড় স্বপ্ন দেখতে পারি।'

ওমান ক্রিকেট বোর্ড, পৃষ্টপোষক, খেলোয়াড় ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ক্লাব সেক্রেটারি শেখ ফাহাদ বলেন, 'আমাদের দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেল। দলকে আরও দক্ষ-প্রশিক্ষিত করে তুলতে আমরা বড় পরিকল্পনা হাতে নিচ্ছি। প্রত্যাশা করি, এ ক্ষেত্রে পৃষ্টপোষক ও বাংলাদেশিদের সমর্থন-সহায়তার কমতি হবে না।'

Comments

The Daily Star  | English

Last-minute purchase: Cattle markets attract crowd but sales still low

Even though the cattle markets in Dhaka and Chattogram are abuzz with people on the last day before Eid-ul-Azha, not many of them are purchasing sacrificial animals as prices of cattle are still quite high compared to last year

8h ago