৭ ঘণ্টা পর ভোমরা বন্দরে আমদানি-রপ্তানি চালু 

ভারতীয় ট্রাকচালক ও খালাসিদের মারপিটের ঘটনায় ৭ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বিকেল ৪টা থেকে সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দরের আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়েছে।
ভোমরা স্থলবন্দর। ফাইল ছবি

ভারতীয় ট্রাকচালক ও খালাসিদের মারপিটের ঘটনায় ৭ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বিকেল ৪টা থেকে সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দরের আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার ভোমরা ও ঘোজাডাঙ্গা শূন্য রেখায় সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোশিয়নের ২ পক্ষের বৈঠকের পর আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়।

ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ খান দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, সোমবার সন্ধ্যায় কয়েকজন ট্রান্সপোর্ট শ্রমিকের সঙ্গে ভারতীয় ট্রাকচালক ও খালাসিদের মারপিট করার ঘটনায় আজ সকাল ১০টা থেকে ভারতের পাশ থেকে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। দুপুর ২টার দিকে বাংলাদেশ ও  ভারতের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ড অ্যাসোসিয়েশনের মধ্যে শূন্যরেখায় বৈঠক হয়।

তিনি আরও জানান, বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জড়িতদের বিরুদ্ধে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে বিকেল ৪টা থেকে আমদানি-রপ্তানি স্বাভাবিক হয়।

সাতক্ষীরার ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি  কাজী নওশাদ দেলোয়ার জানান, ভবিষ্যতে যেন বন্দরে অহেতুক আমদানি-রপ্তানি বন্ধ না হয় এজন্য ভারতীয় পুলিশ, বিএসএফ, সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের নেতাদের সঙ্গে বাংলাদেশের বিজিবি ও সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে একটি সভা হয়। ঘোজাডাঙ্গ বিএসএফ ক্যাম্পে অনুষ্ঠিত সভায় ভোমরা বন্দর এলাকায় সিসি ক্যামেরা লাগানোর অনুরোধ জানান ভারতীয় পক্ষ।

ভোমরা স্থলবন্দরের কয়েকজন শ্রমিক জানান, পাথরবোঝাই ভারতীয় ট্রাক ভোমরা বন্দরে ঢোকার পর ভালো রাস্তা দিয়ে যাওয়া নিয়ে বাদানুবাদ হয়। পরে তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

Comments