বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমেনি, শুধু ডিলারদের কমিশন বেড়েছে

খুচরা বাজারে এর কোনো প্রভাব পড়বে না। ফলে, এই মুহূর্তে জ্বালানি তেলের দাম কমবে বা বাড়বে না।
গতকাল প্রকাশিত এই গেজেটের প্রথম পাতাটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে অনেকে দাবি করছেন যে খুচরা পর্যায়ে জ্বালানি তেলের দাম কমানো হয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

জ্বালানি তেল ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি তাদের কমিশন বাড়িয়েছে সরকার। এর জন্য জ্বালানি তেলের বিপণন প্রতিষ্ঠান, পরিবহন ও ডিলারদের কমিশনে কিছু সমন্বয় হয়েছে। তবে, খুচরা বাজারে জ্বালানি তেলের দাম পরিবর্তিত হয়নি।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় গতকাল সোমবার একটি গেজেট প্রকাশ করেছে, যেখানে 'তেল বিপণন কোম্পানি'গুলোর কাছে কত দামে জ্বালানি তেল বিক্রি করা হবে এবং এর সঙ্গে অন্যান্য খরচ কত হবে, সেই তালিকা দেওয়া হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, প্রতি লিটার ডিজেল ১০১ টাকা ৪৪ পয়সা, কেরোসিন ১০২ টাকা ৩১ পয়সা, অকটেন ১১৯ টাকা ৬২ পয়সা এবং পেট্রোল ১১৪ টাকা ৮৬ পয়সা দরে তেল বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে সরবরাহ করবে।

অর্থাৎ, রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন প্রতিষ্ঠান পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা এই দরে জ্বালানি তেল বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) কাছ থেকে কিনবে।

এর সঙ্গে ডিলারদের কমিশন, পরিবহন ব্যয়সহ অন্যান্য খরচ যোগ হয়ে খুচরা দাম নির্ধারিত হয়।

এই নতুন দর আজ ভোররাত ১২টা থেকে কার্যকর করতে নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই গেজেটের প্রথম পাতাটি ছড়িয়ে পড়েছে এবং অনেকেই দাবি করছেন যে জ্বালানি তেলের দাম কমেছে।

মূলত, এই নতুন দাম কেবলমাত্র জ্বালানি তেলের বিপণন প্রতিষ্ঠান ও ডিলারদের জন্য প্রযোজ্য।

জ্বালানি তেল বিক্রির কমিশন বৃদ্ধির জন্য বেশ কিছুদিন যাবত দাবি জানিয়ে আসছিল জ্বালানি তেল ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা। সর্বশেষ গত রোববার এই দাবিতে সকাল ৮টা থেকে খুলনার রাষ্ট্রয়ত্ত তিন ডিপো থেকে উত্তোলন ও ১৫ জেলায় পরিবহন বন্ধ রাখেন তারা।

এরপর একইদিন সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) কাছ থেকে কমিশন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত কার্যকর হওয়ার আশ্বাস পেয়ে ধর্মঘট তুলে নেন তারা।

ডিলাররা প্রতি লিটার ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রোল বিক্রিতে আগে কমিশন পেতেন যথাক্রমে ২ টাকা ৮৭ পয়সা, ১ টাকা ৭২ পয়সা, ৪ টাকা ৯৬ পয়সা এবং ৪ টাকা ৮২ পয়সা।

নতুন প্রজ্ঞাপন গেজেট অনুযায়ী, তারা এই কমিশন পাবেন যথাক্রমে ২ টাকা ৯৯ পয়সা, ২ টাকা ১২ পয়সা, ৫ টাকা ৩০ পয়সা এবং ৫ টাকা ১৬ পয়সা।

অর্থাৎ, প্রতি লিটার ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রোল বিক্রিতে ডিলারদের কমিশন বেড়েছে যথাক্রমে ১২ পয়সা, ৪০ পয়সা, ৩৪ পয়সা এবং ৩৪ পয়সা।

ডিলারদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সরকার ডিলারদের কমিশন বৃদ্ধি করেছে। খুচরা বাজারে এর কোনো প্রভাব পড়বে না। ফলে, এই মুহূর্তে জ্বালানি তেলের দাম কমবে বা বাড়বে না।

বর্তমানে বাজারে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিন ১০৯ টাকা, অকটেন ১৩০ টাকা এবং পেট্রোল ১২৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। নতুন প্রজ্ঞাপনেও এই দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

 

Comments

The Daily Star  | English
fire incident in dhaka bailey road

Fire Safety in High-Rise: Owners exploit legal loopholes

Many building owners do not comply with fire safety regulations, taking advantage of conflicting legal definitions of high-rise buildings, said urban experts after a deadly fire on Bailey Road claimed 46 lives.

1h ago