বন্যপ্রাণী

পাচারের সময় বিপন্ন ২ ভালুক শাবক উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পাচারের জন্য বন্দী করে রাখা বিপন্ন প্রজাতির ২টি ভালুক শাবক উদ্ধার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ সময় আন্তর্জাতিক পাচারকারী চক্রের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
ছবি: সংগৃহীত

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পাচারের জন্য বন্দী করে রাখা বিপন্ন প্রজাতির ২টি ভালুক শাবক উদ্ধার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ সময় আন্তর্জাতিক পাচারকারী চক্রের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার দীপক দাস (৩২) চকরিয়া পৌরসভার দিগর পানখালী এলাকার বাসিন্দা।

আজ শনিবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলাম।

পুলিশ সুপার জানান, দীপক দাসের আমদানি-রপ্তানি নিষিদ্ধ বন্যপ্রাণী পাচারকাজে জড়িত থাকার ব্যাপারে পুলিশের কাছে আগে থেকে তথ্য ছিল। পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে তার ওপর নজর রাখছিল। এক পর্যায়ে পুলিশ তথ্য পায়, তিনি মিয়ানমার থেকে বান্দরবান সীমান্তের চোরাইপথে ২ ভালুক শাবক এনে নিজ হেফাজতে রেখেছেন। এ তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে পানখালী এলাকায় ডিবি পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়। বাড়িটি ঘেরাও করলে দীপক পালানোর চেষ্টা চালান। এ সময় ধাওয়া দিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। পরে বাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে বিপন্ন প্রজাতির ২টি ভালুক শাবক উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া শাবক ২টির বয়স আনুমানিক ২ মাস এবং প্রতিটির ওজন ১ কেজির বেশি।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, দীপক আন্তর্জাতিক বন্যপ্রাণী পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। মূলত মিয়ানমার থেকে বান্দরবান সীমান্তের চোরাইপথে আমদানি-রপ্তানি নিষিদ্ধ বন্যপ্রাণী পাচার করে এনে নিজ হেফাজতে রাখতেন তিনি। কিছুদিন রাখার পর পাচার চক্রের অন্য সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করতেন।

সম্প্রতি দীপক সংশ্লিষ্ট পাচার চক্রের সদস্যদের মাধ্যমে ২টি ভালুক, ২টি উল্লুক ও ৬টি লজ্জাবতী বানর চোরাইপথে ভারতে পাচার করার কথা জানিয়েছেন পুলিশকে।

আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘ (আইইউসিএন- ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনভেনশন অফ নেচার এন্ড রিসোর্সেস) বন ধ্বংস এবং বন্যপশু শিকারের কারণে ভালুকদের সংকটাপন্ন প্রজাতির প্রাণী হিসেবে বিবেচনা করে। বাংলাদেশে কালো ভালুক মহাবিপন্ন প্রজাতি হিসেবে বিবেচিত এবং বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা ) আইন ২০১২ এর তফসীল-১ অনুযায়ী এই প্রজাতিটি সংরক্ষিত।

দীপকের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে চকরিয়া থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলাম।

এদিকে ২টি ভালুক ছানাকে আজ ডুলাহাজারা সাফারি পার্কে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পার্কের তত্ত্বাবধায়ক মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী  দ্য ডেইলি স্টারকে জানিয়েছেন, ছানা ২টি সুস্থ আছে।

Comments