আন্তর্জাতিক

কোয়ালিশন ছাড়াই সরকার গঠনের আশা ইমরানের দল পিটিআইয়ের

২৪১ আসনের ফলাফলে ইমরান খান সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৯৬টিতে জয়লাভ করেছেন। 
পিটিআই কর্মী-সমর্থকদের উল্লাস। ছবি: সংগৃহীত

ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) আশা করছে, দেশটির জাতীয় নির্বাচনে পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৫০ আসনে জয়লাভ করবে এবং কোনো জোট ছাড়াই দলটি সরকার গঠন করবে।

পিটিআইয়ের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার গওহর আলী খান আজ শুক্রবার জিও নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন আশা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, 'পিটিআই সমর্থিত প্রার্থীরা সরকার গঠনের অবস্থানে আছে। আমরা পাকিস্তান পিপলস পার্টি বা পাকিস্তান মুসলিম লীগের (নওয়াজ) সঙ্গে যোগাযোগ করছি না।'

তার দাবি, পিটিআই নেতারা নির্বাচনে ১৫০টি আসনে জিতেছে এবং কেন্দ্রে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক আসন পেতে সক্ষম হবে দলটি।

'আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে এবং পাঞ্জাবে সরকার গঠন করব,' বলেন ব্যারিস্টার গওহর।

তিনি আরও বলেন, 'খাইবার পাখতুনখোয়ায় পিটিআই স্পষ্টভাবে এগিয়ে আছে এবং সেখানেও সরকার গঠন করবে। পিটিআই সংসদে থাকবে এবং যথাযথ ভূমিকা পালন করবে।'

গতকাল বৃহস্পতিবার পাকিস্তানে ২৬৫ আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল ভোটের ফল প্রকাশ করা হয়নি।

আজ শুক্রবার রাতে জিও নিউজ জানিয়েছে, ২৪১ আসনের ফলাফলে ইমরান খান সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৯৬টিতে জয়লাভ করেছেন। 

এ ছাড়া, নওয়াজ শরিফের দল জিতেছে ৬৯টিতে এবং পিপিপি জিতেছে ৫২ আসনে। 

পিটিআই নেতা গওহর বলেন,  'স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পিটিআইয়ের সদস্য এবং তারা দলীয় নির্দেশের বিরুদ্ধে অন্য কোনো দলে যোগ দেবেন না।'

এর আগে নওয়াজের দল পিএমএল-এনের সিনিয়র নেতা ইসহাক দাবি করেন, জয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীরা তার দলের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত পিটিআই প্রধান ইমরান খানের পাশাপাশি, সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারছেন না তার দলের প্রার্থীরাও। তাদের প্রতীক 'ক্রিকেট ব্যাট' বরাদ্দ দেয়নি দেশটির নির্বাচন কমিশন। স্বতন্ত্র হিসেবে লড়ছেন পিটিআই প্রার্থীরা।

Comments