দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া

নৌকায় করে ইন্দোনেশিয়া উপকূলে ১৮৫ রোহিঙ্গা

১৮৫ জন রোহিঙ্গাকে নিয়ে একটি নৌকা আজ রোববার ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশের উপকূলে পৌঁছেছে। তাদের বহনকারী নৌকাটি দুপুর আড়াইটার দিকে সেখানে পৌঁছায়। ওই নৌকায় থাকা রোহিঙ্গাদের অর্ধেকেরও বেশি নারী ও শিশু। আচেহ প্রদেশের দুর্যোগ সংস্থার প্রধান রিদওয়ান জামিল রয়টার্সকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।
আচেহ, ইন্দোনেশিয়া, রোহিঙ্গা,
আচেহ প্রদেশের গাম্পং বারো গ্রামের সমুদ্র সৈকতে পৌঁছেছেন রোহিঙ্গারা। ৮ জানুয়ারি, ২০২৩। ছবি: রয়টার্স

১৮৫ জন রোহিঙ্গাকে নিয়ে একটি নৌকা আজ রোববার ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশের উপকূলে পৌঁছেছে। তাদের বহনকারী নৌকাটি দুপুর আড়াইটার দিকে সেখানে পৌঁছায়। ওই নৌকায় থাকা রোহিঙ্গাদের অর্ধেকেরও বেশি নারী ও শিশু। আচেহ প্রদেশের দুর্যোগ সংস্থার প্রধান রিদওয়ান জামিল রয়টার্সকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রিদওয়ানের শেয়ার করা ছবিতে দেখা গেছে রোহিঙ্গারা দলে দলে বসে বালুর ওপর শুয়ে আছে।

গত কয়েক মাসে শত শত রোহিঙ্গা আচেহ পৌঁছেছে। এর মধ্যে ডিসেম্বরের শেষের দিকে ১৭৪ জনকে নিয়ে উপকূলে ভেস আসা একটি নৌকাও আছে।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) বলছে, মিয়ানমারে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের জন্য প্রায় এক দশকের মধ্যে ২০২২ সালটি হতে পারে সমু্দ্রপথে সবচেয়ে ভয়াবহ বছর।

বছরের পর বছর ধরে মিয়ামারে নির্যাতনের শিকার অনেক রোহিঙ্গা থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশের মতো প্রতিবেশী রাষ্ট্রে আশ্রয় নিয়েছেন। তারা মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়াতেও পালিয়ে গেছে।

ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আন্তরা শনিবার রাতে রিপোর্ট করেছে, আচেহ-এর জেলেরা রোন্ডো দ্বীপের কাছে জলসীমায় ৩টি নৌকা দেখতে পেয়েছে। জেলেদের সন্দেহ করে এসব নৌকায় রোহিঙ্গারা আছেন।

তবে, রয়টার্স বলছে- যে নৌকাটি উপকূলে পৌঁছেছে সেটি ওই ৩টির একটি কিনা তা এখনো স্পষ্ট নয়।

Comments