‘চা চাষেই লালমনিরহাটে সমৃদ্ধি আসবে’

বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, চা চাষের মাধ্যমেই লালমনিরহাটে সমৃদ্ধি আসবে। এ জেলার মাটি চা চাষের উপযোগী। অনেকেই চা চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। চা চাষিদের সব ধরনের সহযোগিতা দেবে চা বোর্ড।
লালমনিরহাটে চা চাষিদের নিয়ে র‌্যালিতে অংশ নেন চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম। ছবি: এস দিলীপ রায়

বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, চা চাষের মাধ্যমেই লালমনিরহাটে সমৃদ্ধি আসবে। এ জেলার মাটি চা চাষের উপযোগী। অনেকেই চা চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। চা চাষিদের সব ধরনের সহযোগিতা দেবে চা বোর্ড।

আজ রোববার বিকেলে লালমনিরহাট সদর উপজেলার চিনিপাড়া গ্রামে চা চাষে উৎসাহ প্রদান ও প্রণোদনা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

চা বোর্ডের চেয়ারম্যান আরও বলেন, এ অঞ্চলের চা চাষিরা যাতে চা পাতার ন্যায্যমূল্য পান সেজন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে। চা চাষিদের সুবিধার জন্য লালমনিরহাটে চা বোর্ড একটি অফিস চালু করতে যাচ্ছে। এর মাধ্যমে এ অঞ্চলে চা চাষ সম্প্রসারিত করা হবে। লালমনিরহাটের উঁচু জমিতে চা চাষ করার আহ্বান জানান তিনি।

চা চাষিরা বলেন, লালমনিরহাটে অনেক কৃষক তামাক চাষ করেন। চা চাষই পারে তাদেরকে তামাক চাষ থেকে বিরত রাখতে। এখন অনেক কৃষক চা চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। চা চাষে লাভবান হলে কৃষকরা তামাক চাষ থেকে সরে আসবে।

চা বোর্ড সূত্র জানায়, লালমনিরহাটে ২৩৪ একর জমিতে চা চাষ হচ্ছে। জেলায় ২০২২ সালে ৭ দশমিক ৯৪ লাখ কেজি সবুজ চা পাতা উৎপাদন হয়েছে। এই চা পাতা দিয়ে দুই শিফটে একটি চা কারখানা চালানো সম্ভব।

Comments

The Daily Star  | English

Three lakh stranded as flash flood hits 4 upazilas of Sylhet

Around three lakh people in four upazilas of Sylhet remain stranded by a flash flood triggered by heavy rain in the bordering areas and India's Meghalaya

26m ago