ছাদ থেকে পড়ে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মৃত্যু, বাবাকে খুঁজছে পুলিশ

রাজধানীর দক্ষিণখানে ১০তলা ভবনের ছাদ থেকে পড়ে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সানজানা মোসাদ্দিকার (২২) মৃত্যুর ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর বাবাকে খুঁজছে পুলিশ।
মিরপুরে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু
প্রতীকী ছবি। স্টার ডিজিটাল গ্রাফিক্স

রাজধানীর দক্ষিণখানে ১০তলা ভবনের ছাদ থেকে পড়ে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সানজানা মোসাদ্দিকার (২২) মৃত্যুর ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর বাবাকে খুঁজছে পুলিশ।

এর আগে গত রোববার রাতে সানজানার বাবা শাহীন আলমের (৪৮) বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দক্ষিণখান থানায় মামলা করেন মা উম্মে সালমা।

এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন মামলার আসামি শাহীন আলম।

দক্ষিণখান থানার ওসি মামুনুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'মামলায় ওই শিক্ষার্থীর বাবা শাহীন আলমকে আসামি করা হয়েছে। তিনি একজন রেন্ট-এ-কার (গাড়ি ভাড়া দেওয়া) ব্যবসায়ী। ৫ বছর আগে তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন, কিন্তু বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন। এটি জানাজানি হলে ২ মাস আগে উম্মে সালমার সঙ্গে তার ডিভোর্স হয়।'

এদিকে এটিকে 'আত্মহত্যা নয়, হত্যা' বলে দাবি করেছেন সানজানার সহপাঠীরা। তাদের অভিযোগ, ১২তলা থেকে পড়ে গেলে তার রক্তপাত হওয়ার কথা, শরীর থেঁতলে যাওয়ার পর। কিন্তু সানজানার মরদেহে তেমন কিছু দেখা যায়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি বলেন, 'অনেকে এটাকে হত্যাকাণ্ড হিসেবে সন্দেহ করছেন। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। তবে এখনো হত্যার কোনো সূত্র খুঁজে পাওয়া যায়নি।'

'ঘটনার আগেরদিন ওই শিক্ষার্থীর বাবা এসেছিলেন। তিনি রাতে চলে গেছেন। সেদিন নিরাপত্তাকর্মীকে কাপড় শুকাতে যাওয়ার কথা বলে তিনি চাবি নিয়ে ছাদে যান। তার একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। সেখানে তিনি মৃত্যুর জন্য বাবাকে দায়ী করেছেন। তাছাড়া আমরা দুটি বই পেয়েছি, যেগুলো তিনি বন্ধুদের কাছ থেকে এনেছিলেন। সেগুলো তাদেরকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথাও লিখে রেখেছেন। প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে,' বলেন তিনি।

'আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেছি। ওই ভবনের নিচে নতুন মাটি ছিল। সে কারণে রক্তপাত না হয়ে থাকতে পারে। তবে ময়নাতদন্তে কোমর থেকে পা পর্যন্ত ভাঙা পাওয়া গেছে,' যোগ করেন তিনি।

ওসি আরও বলেন, 'গত মার্চ মাসে তিনি মানসিক ডাক্তার দেখিয়েছিলেন। আমরা একটি প্রেসক্রিপশন পেয়েছি। সেখান থেকে তার মানসিক চিকিৎসার বিষয়টি জানা গেছে।'

'তবে আমরা আত্মহত্যা প্ররোচনার বিষয়টিও খতিয়ে দেখছি। তার বাবা পড়াশোনার খরচ দিতো না এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেন। আমরা তাকে আটকের চেষ্টা করছি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে বিস্তারিত জানা যাবে,' যোগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ১০তলা ভবনের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সানজানার (২২) মৃত্যু হয়। তিনি ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

3h ago