অপরাধ ও বিচার

ধর্ষণ ও পর্নগ্রাফি মামলায় ভুয়া এসআই গ্রেপ্তার

রংপুরের কাউনিয়ায় ধর্ষণ ও ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগের মামলায় সোহেল রানা (২৭) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
নৌকার এজেন্টের ৬ মাসের কারাদণ্ড
প্রতীকী ছবি। স্টার ডিজিটাল গ্রাফিক্স

রংপুরের কাউনিয়ায় ধর্ষণ ও ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে হওয়া মামলায় সোহেল রানা (২৭) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার আসামিকে গ্রেপ্তারের পর আজ তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আসামি সোহেল রানা লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ছিরাগঞ্জ চুলকা গ্ৰামের ফজলুর রহমানের ছেলে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, প্রায় দুই বছর আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আসামি সোহেলের সঙ্গে ভুক্তভোগী নারীর পরিচয় হয়। এসময় নিজেকে পুলিশের এসআই পরিচয় দেন সোহেল। পরিচয়ের সূত্রে গৃহবধূর ভিডিও করেন সোহেল। পরে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে রাখে সোহেল।

গত সোমবার ভুক্তভোগী নারীর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন সোহেল। এসময় ভুক্তভোগী নারীর চিৎকারে সোহেলকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন গৃহবধূর স্বামী।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুজ্জামান কবির বলেন, সোহেল নিজেকে পুলিশের এসআই পরিচয় দিয়েছিলেন কিনা তা তদন্তে জানা যাবে। তাকে গ্রেপ্তারের পর বুধবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জানান, এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে সোহেল রানাকে আসামি করে ধর্ষণ ও পর্নগ্ৰাফি ধারায় মামলা হয়েছে।

Comments