অপরাধ ও বিচার

কুকুর লেলিয়ে হিমাদ্রি হত্যা: ৩ আসামির ফাঁসি বহাল, খালাস ২

চট্টগ্রামে ২০১২ সালে এ লেভেল শিক্ষার্থী হিমাদ্রি মজুমদার হিমু হত্যা মামলার রায়ে হাইকোর্ট আজ বৃহস্পতিবার ৩ আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে ও অপর ২ জনকে খালাস দিয়েছেন।
দেশটাকে তো জাহান্নাম বানিয়ে ফেলেছেন
স্টার ফাইল ফটো

চট্টগ্রামে ২০১২ সালে এ লেভেল শিক্ষার্থী হিমাদ্রি মজুমদার হিমু হত্যা মামলার রায়ে হাইকোর্ট আজ বৃহস্পতিবার ৩ আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে ও অপর ২ জনকে খালাস দিয়েছেন।

বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তী ও বিচারপতি খন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেচ ডেথ রেফারেন্স (ট্রায়াল কোর্টের নথি) এবং নিম্ন আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে আসামিদের আপিল শুনানি শেষে এই রায় দেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১২ সালের ২৭ এপ্রিল হিমুকে নির্মমভাবে মারধর করা হয়, তার পেছনে কুকুর লেলিয়ে দেওয়া হয় এবং বন্দর নগরীর পাঁচলাইশ আবাসিক এলাকার একটি ৪ তলা ভবন থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। ২০১২ সালের ২৩ মে ঢাকার একটি হাসপাতালে মারা যান হিমাদ্রি।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ২০১৬ সালের ১৪ আগস্ট চট্টগ্রামের একটি আদালত ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- শাহ সেলিম টিপু, মো. শাহাদাত হোসেন সাজু, জাহেদুল ইসলাম শাওন, মাহবুব আলী খান ড্যানি ও টিপুর ছেলে জুনায়েদ আহমেদ রিয়াদ।

আজ মামলার রায়ে হাইকোর্ট জাহেদুল ইসলাম শাওন, মাহবুব আলী খান ড্যানি ও জুনায়েদ আহমেদ রিয়াদের মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রেখেছেন। বেকসুর খালাস দিয়েছেন শাহ সেলিম টিপু ও শাহাদাত হোসেন সাজুকে।

হিমু চট্টগ্রামের সামারফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন।

Comments