৩১ ঘণ্টার ব্যবধানে আরেক রোহিঙ্গা নেতাকে গুলি করে হত্যা

স্থানীয় রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, মিয়ানমারের সশস্ত্র গোষ্ঠী আরসা এ ঘটনা ঘটিয়েছে।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

কক্সবাজার জেলার উখিয়ার কুতুপালংয়ে মাত্র ৩১ ঘণ্টার ব্যবধানে আরেক রোহিঙ্গা নেতাকে (মাঝি) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

আজ বুধবার সকাল ৮টায় লম্বাশিয়া ২ (পশ্চিম) ক্যাম্পের ডি-ব্লকে রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ হোসেনকে (৫২) গুলি করে হত্যা করা হয়।

১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক ছৈয়দ হারুনুর রশিদ জানান, নিহত মোহাম্মদ হোসেন ওরফে কালাবদা লম্বাশিয়া ২ (পশ্চিম) ক্যাম্পের ডি-ব্লকের আজিজুর রহমানের ছেলে। তিনি ডি-ব্লকের মাঝি হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে হারুনুর রশিদ বলেন, 'সকালে নিজের ঘরের পাশে একটি দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন মোহাম্মদ হোসেন। এ সময় ৭-৮ জনের মুখোশধারী একদল দল তাকে লক্ষ্য করে উপর্যুপরি গুলি করে। এতে মোহাম্মদ হোসেন গুলিবিদ্ধ হন এবং তাকে উদ্ধার করে কুতুপালং আশ্রয় শিবির সংলগ্ন এমএসএফ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।'

তিনি বলেন, 'খবর পেয়ে এপিবিএন পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।'

'রোহিঙ্গা শিবিরে কয়েকটি দুষ্কৃতিকারী দল সক্রিয় রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ড হয়েছে। স্থানীয় রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, মিয়ানমারের সশস্ত্র গোষ্ঠী আরসা এ ঘটনা ঘটিয়েছে', যোগ করেন তিনি।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার ভোররাত ১টায় উখিয়ার বালুখালী এলাকার ৯ নম্বর ক্যাম্পের ৩/সি ব্লকে নিজের ঘর থেকে বের করে গুলি করে হত্যা করা হয় মো. নুর হাবিব ওরফে ডাক্তার ওয়াক্কেসকে (৫১)। তিনিও রোহিঙ্গা নেতা ছিলেন।

 

Comments