এনএসইউর সাবেক ট্রাস্টিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ৩০ আগস্ট

জামিনে থাকা ৯ আসামির সবাই আজ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (এনএসইউ) তহবিল থেকে প্রায় ৩০৪ কোটি টাকা পাচারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সাবেক ৫ সদস্যসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য আগামী ৩০ আগস্ট দিন ধার্য করেছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার মামলার শুনানি স্থগিত চেয়ে অভিযুক্তদের আইনজীবীরা পৃথক আবেদন করলে ঢাকা মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আসাদুজ্জামান এ আদেশ দেন।

বর্তমানে জামিনে থাকা ৯ আসামির সবাই আজ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

৫ সাবেক ট্রাস্টি হলেন—মিউচুয়াল গ্রুপ অব কোম্পানিজের চেয়ারম্যান আজিম উদ্দিন আহমেদ, রেমন্ড গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও বেনজীর আহমেদ, মিউচুয়াল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এম এ কাশেম, বেঙ্গল ট্রেডওয়েজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রেহানা রহমান, শাহ ফতেউল্লাহ টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের এমডি মোহাম্মদ শাজাহান।

বাকি ৪ জন হলেন—আশালয় হাউজিং অ্যান্ড ডেভেলপারসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আমিন মো. হিলালী, চেয়ারম্যান ওমর ফারুক এবং পরিচালক আনোয়ারা বেগম ও সৈয়দ একে হক।

তাদের মধ্যে কাশেম, বেনজীর, রেহানা ও মোহাম্মদ শাজাহানকে গত বছরের ২২ মে হাইকোর্টের আদেশে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই দিন হাইকোর্ট তাদের আগাম জামিনের আবেদন নাকচ করে দেন এবং শাহবাগ পুলিশকে অবিলম্বে তাদের গ্রেপ্তার করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিচারিক আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেন।

গত বছরের ১০ নভেম্বর নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ৫ সাবেক সদস্যসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপ-পরিচালক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী।

দুদক ৪ অভিযুক্ত ও এনএসইউ বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান আজিম উদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করে। মামলায় আশালয় হাউজিং অ্যান্ড ডেভেলপারসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন মো. হিলালীকেও আসামি করা হয়।

গত বছরের ৫ মে দুদকের উপ-পরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী ঢাকায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে মামলাটি করেন।

Comments

The Daily Star  | English
national election

Human rights issues in Bangladesh: US to keep expressing concerns

The US will continue to express concerns on the fundamental human rights issues in Bangladesh including the freedom of the press and freedom of association and urge the government to uphold those, said a senior US State Department official

1h ago