অবৈধ সম্পদ অর্জন, রংপুর পরিবার পরিকল্পনা অফিসের স্টোরকিপারের কারাদণ্ড

রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।
স্টার ডিজিটাল গ্রাফিক্স

অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে রংপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের স্টোরকিপার হামিদুর রহমানকে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

এছাড়া তাকে ৭ লাখ ৪০ হাজার ৭৪৫ টাকা জরিমানা করা হয়েছে, যা রায়ের ৬০ দিনের মধ্যে সরকারি কোষাগারে জমা দিতে দিতে বলা হয়েছে।

আজ সোমবার রংপুর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক হায়দার আলী এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত হামিদুর রহমান নওগাঁ জেলার সদর উপজেলার কেশবপুর গ্রামের বাসিন্দা। তার বর্তমান ঠিকানা রংপুর নগরীর গুরুদাতিপাড়ায়।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের আগে রংপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে কর্মরত থাকাকালে হামিদুর রহমান অবৈধভাবে নিজের ও স্ত্রীর নামে সম্পদ অর্জন করেন। রংপুর শহরে ও নওগাঁয় একটি তিনতলা বিলাসবহুল ভবন, বেশ কয়েকটি প্লট ও একরের পর একর জমির মালিক হন তিনি।

এ ঘটনায় ২০১১ সালের ২৭ জুলাই দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) রংপুরের সহকারী পরিচালক জালাল উদ্দিন বাদী হয়ে হামিদুরের বিরুদ্ধে মামলা করেন। সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত হামিদুর রহমান মণ্ডলকে দোষী সাব্যস্ত করে আজ সোমবার তাকে কারাদণ্ড দেন।

রংপুর আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

Comments