নাটোরে বিএনপি নেতার ওপর হামলা: আ. লীগ কর্মীসহ ১২ জন কারাগারে

রোববার দুপুরে আদালত এই আদেশ দেন।
আদালত প্রাঙ্গণে মামলার আসামিরা। ছবি: স্টার

নাটোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মো. শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর ওপর হামলার ঘটনায় করা মামলায় আওয়ামী লীগ কর্মী রাশিদুল ইসলাম কোয়েলসহ ১২ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

রোববার দুপুরে মামলার প্রধান আসামি কোয়েলসহ ১৪ জন আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রওশন আলম পাঁচ জনের জামিন মঞ্জুর ও নয়জনের জামিন নামঞ্জুর করেন।

জেলহাজতে পাঠানো নয়জন হলেন—রাশিদুল ইসলাম কোয়েল, গোলাম কিবরিয়া সেলিম, আমিরুল ইসলাম জনি, মো. কানন, মো. হৃদয়, মো. সজিব, মো. প্রিন্স, মোহন ও মাহাতাব।

একই মামলার শনিবার গ্রেপ্তার এজাহারনামীয় সবুজ, রানা, ও তদন্তে প্রাপ্ত রাসুকে রোববার একই আদালতে সোপর্দ করলে আদালতে তাদের জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন এবং তাদের আইনজীবীদের করা জামিন আবেদন নাকচ করেন।

নাটোরের কোর্ট ইন্সপেক্টর মো. মোস্তফা কামাল বলেন, ওই মামলায় নাটোর সদর আমলি আদালতে ১৪ জন আসামি আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে আদালত নয়জনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন, আর পাঁচজনকে জামিন দেন। অন্যদিকে একই মামলায় গ্রেপ্তার তিনজনকেও জেলা হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন একই আদালত। পরে দুপুর তিনটার দিকে কড়া পুলিশ পাহারায় ১২ জনকে আদালত থেকে জেলহাজতে নেওয়া হয়।

এর আগে শনিবার সকালে ১৬ জনের নামে উল্লেখসহ ৪০-৫০ জনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা করেন শহিদুল ইসলাম বাচ্চুর স্ত্রী সুলতানা পারভীন। এরপর সেইদিনই পুলিশ এজাহারনামীয় তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

গত বুধবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে নাটোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শহীদুল ইসলাম বাচ্চুকে শহরের আলাইপুর এলাকায় বিএনপি অফিসের পাশে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে যোগ দিতে আসার পথে জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের আরও পাঁচ নেতাকেও মারধর করা হয়।

ওইদিন হামলায় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম বাচ্চুসহ আহত হন জেলা শ্রমিক দলের দপ্তর সম্পাদক রফিক, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সাব্বিরুল ইসলাম চপল, পৌর বিএনপির পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মশিউর ফেরদৌস হিটলু। সমাবেশের প্রধান অতিথি দলের নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলও হামলায় হন।

জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ফরহদা আলী দেওয়ান শাহিন অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নাটোরে আয়োজিত সমাবেশে যোগদানের পথে নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুলের সন্ত্রাসী বাহিনী।

বিএনপির দাবি, তাদের নেতাদের ওপর হামলার নেতৃত্ব দেয় চিহ্নিত সন্ত্রাসী রাশিদুল ইসলাম কোয়েল, গোলাম কিবরিয়া সেলিম ও আমিরুল ইসলাম জনি।

আহত বিএনপির আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম বাচ্চুকে প্রথমে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং এরপর ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন। বাকিরা ওইদিন প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

Comments